প্রাণভিক্ষার আবেদন করবেন কিনা সে বিষয়ে জানাতে আরো সময় চেয়েছেন মীর কাসেম আলী

বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলী
Image caption বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলী

বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলী তার প্রাণভিক্ষার আবেদন করবেন কিনা সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্ত জানান নি। তার সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য তিনি আরো সময় চেয়েছেন।

কাশিমপুর কারাগারের কারা তত্ত্বাবধায়ক প্রশান্ত কুমার বণিক বিবিসি বাংলাকে বলেন আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাকে প্রাণভিক্ষার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি কিছু জানান নি।

এদিকে কারা কর্তৃপক্ষ বলছে মীর কাসেম আলীর জন্য যেহেতু জেল কোড প্রযোজ্য হবে না তারাপরেও মানবিক দিক বিবেচনা করে তাকে একটা যৌক্তিক সময় দেয়া হবে।

এর আগে মীর কাসেম আলী তার ছেলেকে ফেরত না পাওয়া পর্যন্ত এবিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন না বলে তিনি জানিয়েছেন।

বুধবার গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে গিয়ে তার সাথে দেখা করার পর তার স্ত্রী খন্দকার আয়েশা খাতুন সাংবাদিকদের এমন শর্তের কথা জানিয়েছিলেন।

আহমেদ বিন কাসেম সপ্তাহ তিনেক আগে নিখোঁজ হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার আপিল বিভাগ এই জামায়াত নেতার ফাঁসির আদেশ বহাল রেখে তার রিভিউ আবেদন খারিজ করে দিয়েছে।

কাশিমপুর কারাগারে মীর কাসেম আলীর সাথে তার পরিবারের সদস্যরা দেখা করেন বুধবার দুপুরে। প্রায় দু`ঘন্টা সময় ধরে তারা কারাগারের ভিতরে ছিলেন।