জালিয়াতি: ভারতে ৭৫০ ভুয়া কলসেন্টার কর্মী আটক

ছবির কপিরাইট PA
Image caption কলসেন্টার কর্মী সেজে এই জালিয়াতি করা হয়।

কর বিভাগের কর্মকর্তা সেজে মার্কিন নাগরিকদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ ডলার হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে ভারতের মুম্বাইর পুলিশ সাড়ে সাতশোর বেশি ভুয়া কল সেন্টার কর্মীকে গ্রেফতার করেছে।

মুম্বাই পুলিশের দুশোর বেশি সদস্য গতরাতে সাতটি জায়গায় অভিযান চালিয়ে এদের গ্রেফতার করে।

মুম্বাই পুলিশের একজন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, তারা মোট ৭৭২ জনকে আটক করেন। এদের মধ্যে ৭০ জনকে সুনির্দিষ্ট অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়া হলেও তাদের বিরুদ্ধে এখনো তদন্ত চলছে।

যেভাবে জালিয়াতি

পুলিশ জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের ইনল্যান্ড রেভিনিউ সার্ভিসের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এরা মার্কিন নাগরিকদের ফোন করতো। তারা কথাবার্তার এক পর্যায়ে মার্কিন নাগরিকদের জানাতো যে তাদের কর অনাদায়ী রয়েছে। তাদের ব্যাংক একাউন্টের বিস্তারিত তথ্য এভাবে ভয় দেখিয়ে তারা সংগ্রহ করতো। এরপর সেই একাউন্ট থেকে অর্থ সরিয়ে নিত।

মুম্বাই পুলিশের কর্মকর্তা সুখাদা নারকার জানান, গত এক বছরের বেশি সময় ধরে এই জালিয়াতি চলছিল।

তিনি বলেন, প্রতিদিন এই জালিয়াত চক্র অন্তত এক কোটি রূপী (দেড় লক্ষ মার্কিন ডলার) এভাবে হাতিয়ে নিচ্ছিল বলে তারা ধারণা করছেন।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ভারতীয় আইনে বিভিন্ন মামলা করা হয়েছে।

মার্কিন গণমাধ্যমেও এধরণের জালিয়াতির খবর বেরুচ্ছিল। ভারত থেকেই এই জালিয়াতি করা হচ্ছিল বলে তারা সন্দেহ করছিল।

উল্লেখ্য গত দশকের শুরু থেকে ভারত কল সেন্টার ব্যবসার কেন্দ্র হয়ে উঠে। ইউরোপ-আমেরিকার অনেক প্রতিষ্ঠানই খরচ কমানোর জন্য তাদের কল সেন্টার নিয়ে যায় ভারতে।

তবে সাম্প্রতিককালে এই ব্যবসায় ভারতের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে ফিলিপাইন।