বাংলাদেশে র‍্যাবের পৃথক জঙ্গি বিরোধী অভিযানে ৪ জন নিহত

র‍্যাব ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption র‍্যাব

বাংলাদেশে ঢাকার কাছে গাজীপুর এক জঙ্গি বিরোধী অভিযানে অন্তত দু'জন সন্দেহভাজন জঙ্গি নিহত হয়েছে বলে জানাচ্ছে র‍্যাব।

তবে এদের পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

অভিযান এখনো অব্যাহত রয়েছে।

টাঙ্গাইলে পৃথক আরেক অভিযানে আরো দুজন সন্দেহভাজন জঙ্গি নিহত হবারও খবর পাওয়া যাচ্ছে।

আজ ভোর থেকে গাজীপুর সদরের হাড়িনাল এলাকার একটি বাড়ীকে ঘিরে রাখে র‍্যাব ও পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা।

পরে র‍্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান বিবিসি বাংলাকে জানান বাড়িটিতে অভিযানে দু'জন সন্দেহভাজন নিহত হয়েছে।

সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে।

অভিযান এখনো চলছে উল্লেখ করে মি. খান বিস্তারিত আর কিছুই জানান নি, এমনকি নিহত সন্দেহভাজনদের পরিচয়ও নয়।

ঘটনাস্থলের আশপাশে সাংবাদিকদের ভিড়তে দেয়া হচ্ছে না।

ঘটনাস্থল থেকে কিছুটা দূর থেকে স্থানীয় সাংবাদিক নাসির আহমেদ জানাচ্ছেন, ভোর থেকেই বাড়িটিকে ঘিরে রেখেছিল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

কিছুক্ষণ আগে তারা দূর থেকে বাড়িটিতে কিছু একটা ভাঙার শব্দ পেয়েছেন।

"সম্ভবত দরজা ভাঙা হচ্ছিল", বলছিলেন মি. আহমেদ।

তিনি আরো বলছিলেন, এই অভিযান চলার সময়ই ওই বাড়িটি থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একটা বড় অংশ চলে যায় ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার দূরবর্তী পশ্চিমপাড়া এলাকায় এবং সেখানে একটি বাড়িকে তারা ঘিরে ফেলে।

ওই বাড়িটিকে ঘিরে কি হচ্ছে, তা এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

এদিকে, টাঙ্গাইল থেকে সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন, শহরের কাগমারা এলাকাতেও আজ সকাল থেকে র‍্যাব-১২ একটি জঙ্গি বিরোধী অভিযান শুরু করে।

সেখানে অভিযানে দু'জন অভিযুক্ত জঙ্গি সদস্য নিহত হবার খবর দিচ্ছেন সংবাদদাতারা।

র‍্যাব-১২ এর অধিনায়ক শাহাবুদ্দিন খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলছেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ সকালে কাগমারায় একটি বাড়ীকে ঘিরে ফেলে র‍্যাবের সদস্যরা।

এসময় ভেতর থেকে সন্ত্রাসীরা র‍্যাবকে উদ্দেশ্য করে গুলি ছোড়ে।

"তারা আল্লাহু আকবর শ্লোগান দিচ্ছিল", বলছেন মি. খান।

এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে উল্লেখ করে মি. খান বলেন, ভেতরে র‍্যাবের তল্লাশি অভিযান চলছে। গোলাগুলিতে দুজন সন্দেহভাজন নিহত হয়েছে।

ভেতরে অস্ত্র, গুলি ও বোমা রয়েছে।

পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়-করণ দলকে খবর দেয়া হয়েছে।

তারা ঘটনাস্থলে আসছে।

এই দুজন নিহত সন্দেহভাজনের পরিচয় সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি এখনো।