গুলশানের ঐ জায়গায় আর ব্যবসা করবে না হলি আর্টিজানের মালিকপক্ষ

ছবির কপিরাইট হলি আর্টিজান বেকারি
Image caption সন্ত্রাসী হামলার পর, মাত্র গতকালই জায়গাটির মালিকানা ফিরে পেয়েছেন ঐ জমির মালিক

গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁর অন্যতম একজন অংশীদার জানিয়েছেন, নতুন করে ঐ একই জায়গায় প্রতিষ্ঠানটি চালুর সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে।

জুলাইতে সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনার পর,মাত্র গতকালই জায়গাটির মালিকানা ফিরে পেয়েছেন জমির মালিক।

হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁর অন্যতম একজন অংশীদার আলী আরসালান বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, হলি আর্টিজানের যারা উদ্যোক্তা, তারা রেস্তোরাঁ ব্যবসার সঙ্গেই জড়িত আছেন।

হামলার ঘটনার কয়েকদিন পর থেকেই তারা অরেকটি রেস্তোরাঁর মাধ্যমে 'টেকএ্যাওয়ে' সার্ভিস চালু করেছেন।

যদিও রেস্তোরাঁর অপর উদ্যোক্তা, যিনি জমির মালিকের স্বামী, সাদাত মেহেদীর সঙ্গে এখনো এনিয়ে কথা হয়নি বলে জানিয়েছেন মি. আরসালান।

সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহতদের স্মরণে রেস্তোরাঁর ঐ স্থানে একটি স্মৃতিফলক তৈরির ইচ্ছে রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ বছরের পয়লা জুলাই সন্ত্রাসীদের হামলায় ১৭জন বিদেশীসহ মোট ২২ জন মানুষ নিহত হবার পর থেকে গুলশানের হলি আর্টিজান আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে ছিল।

জঙ্গি হামলার সাড়ে চার মাস পর আদালতের নির্দেশনায় গতকাল গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারি মালিকদের কাছে ভবনটি বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

২০১৪ সালে চালু হবার পর দ্রুতই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল রেস্তোরাঁটি, বিশেষ করে ঢাকায় অবস্থানরত বিদেশী নাগরিকদের মধ্যে।