বাংলাদেশে শহরের ৮২ শতাংশ শিশু শারীরিক বা মানসিক শাস্তির শিকার

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption শহরাঞ্চলে প্রায় ৮ শতাংশ শিশু নানা মাত্রায় শিশুশ্রমে জড়িত বলেও জরিপে উঠে এসেছে

বাংলাদেশের শহরাঞ্চলের ১ থেকে ১৪ বছর বয়সী ৮২ শতাংশের বেশি শিশু মানসিক আগ্রাসন কিংবা শারীরিক শাস্তির মুখোমুখি হয়। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো এবং জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক সংস্থা, ইউনিসেফের এক জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে।

শহরাঞ্চলে শিশুদের অবস্থা নিয়ে পরিচালিত এই জরিপে ১৭.৬ শতাংশ শিশু মারাত্মক শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয় বলে উল্লেখ করা হয়।

জরিপে দেখা যায়, শহরাঞ্চলে ১৫-১৯ বছর বয়সী কিশোরীদের প্রায় ৩৩ শতাংশ বিবাহিত।

মূলত: শহরাঞ্চলে শিশুদের স্বাস্থ্যগত, সামাজিকসহ নানা বিষয়ের দিকে আলোকপাত করা হয়। জরিপে বাংলাদেশের ৭ টি বিভাগীয় শহরের তথ্যও পৃথকভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

বস্তিবাসী শিশুরা তুলনামূলক বেশি শারীরিক শাস্তির মুখোমুখি হলেও বস্তির বাইরের শিশুদের মধ্যেও এই সংখ্যা কম নয়। বস্তিবাসীদের মধ্যে প্রায় ৮৫ শতাংশ এবং বস্তিবাসীর বাইরে ৮২ শতাংশ শিশু শাস্তির মুখোমুখি হয়।

জরিপ অনুযায়ী, বাংলাদেশের শহরাঞ্চলের ১-৫ বছর বয়সী ২০ শতাংশের বেশি শিশুর ওজন ইউনিসেফ নির্ধারিত আন্তর্জাতিক মানের চেয়ে কম এবং ২৬ শতাংশের বেশি শিশুর উচ্চতা মানদণ্ডের তুলনায় কম।

পৃথকভাবে সিলেটের শহরাঞ্চলে শিশুদের মধ্যে কম ওজন এবং উচ্চতার হার সবচেয়ে বেশি দেখা গেছে। সেখানে ৩৫ শতাংশ শিশুর উচ্চতা এবং প্রায় ২৬ শতাংশ শিশুর ওজন মানদণ্ডের তুলনায় কম।

বাংলাদেশের শহরাঞ্চলের ২০ হাজার বাড়িতে এই জরিপ চালানো হয়।