আগা খানের বাড়িতে অবকাশ যাপন নিয়ে তদন্তের মুখে কানাডার প্রধানমন্ত্রী

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর অবকাশ যাপন নিয়ে বিতর্কের মুখে তদন্ত শুরু করতে যাচ্ছে সে দেশের ফেডারেল এথিকস কমিশনার।

নতুন বছরের শুরুতে অবকাশ যাপনের জন্য জাস্টিন ট্রুডোর পরিবার ধনকুবের এবং আধ্যাত্মিক নেতা আগা খানের বাহামা দ্বিপপুঞ্জের বাড়িতে গিয়েছিলেন।

কানাডার ফেডারেল এথিকস কমিশনার এখন তদন্ত করে দেখবেন, জাস্টিন ট্রুডো অবকাশ যাপনের জন্য আগা খানের ব্যক্তিগত দ্বীপে যাওয়া কোন স্বার্থের সংঘাত তৈরি করে কিনা।

মি: ট্রুডো অবশ্য বলেছেন, তিনি যে কোন প্রশ্নের উত্তর দিতে তৈরি আছেন। গত সপ্তাহের প্রাথমিক তদন্তের পর এথিকস কমিশনার জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী কোন নীতি ভঙ্গ করেছেন কিনা সে বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্ত করবেন।

মি: ট্রুডো স্বীকার করেছেন যে তিনি আগা খানের ব্যক্তিগত হেলিকপ্টার ব্যাবহার করেছেন। আগা খান পরিবারের সাথে কানাডার ট্রুডো পরিবারের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে।

আগা খান ফাউন্ডেশন কানাডায় লবিস্ট বা তদবীরকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃত। গত কয়েক দশকে আগা খান ফাউন্ডেশন কানাডার লিবারেল এবং কনজারভেটিভ রাজনৈতিক দলের কাছ থেকে লবিস্ট ফি হিসেবে শত-শত কোটি ডলার গ্রহণ করেছেন।

কানাডার আইন অনুযায়ী সে দেশের কোন মন্ত্রী কারও কাছ থেকে কোন উপহার কিংবা বিনামূল্যে ভ্রমণ গ্রহণ করতে পারবেন না। এখনো পর্যন্ত কানাডার কোন প্রধানমন্ত্রীকে এ ধরনের নীতি ভঙ্গের জন্য দায়ী করা হয়নি।

কিন্তু এ ধরনের অভিযোগ মি: ট্রুডোর ইমেজের জন্য খানিকটা বিব্রতকর হতে পারে। কারণ ব্যক্তিগত আচরণ এবং সহজে জনসাধারণের সাথে মেলামেশার জন্য কানাডার প্রধানমন্ত্রীর বেশ সুনাম রয়েছে।