সৌদি বাদশার সঙ্গে নৈশভোজের ভিডিও ব্লগিং করলেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption বাদশাহ সালমানকে নিয়ে গলফ কার্ট চালিয়ে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো

সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সউদের ইন্দোনেশিয়া সফরের বহর নিয়ে গত কদিন ধরে গণমাধ্যমে চলছে নানা আলোচনা।

তবে এতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডোর এক ইউটিউব ভিডিও।

জোকো উইডোডো সম্ভবত বিশ্বের একমাত্র রাষ্ট্রনায়ক যিনি তার প্রতিদিনের কাজকর্ম ভিডিও করে ইউটিউবে ছাড়তে পছন্দ করেন।

এবার তিনি সৌদি বাদশাহর সঙ্গে তাঁর নৈশভোজের ভিডিও ছেড়েছেন ইউটিউবে।

সবাইকে আসসালামুআলাইকুম জানিয়ে এই ভিডিওর রেকর্ডিং শুরু করছেন প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো।

এরপর দেখা যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো তার মোবাইল ফোনের ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে কথা বলছেন, আর পেছনের টেবিলে বসে খাচ্ছেন সৌদি বাদশাহ সালমান।

এরপর সৌদি বাদশাহকেও ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে কিছু বলতে দেখা যায়।

প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডোর এই ভিডিও ইন্দোনেশিয়ায় রীতিমত হৈচৈ ফেলে দিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওটি শেয়ার করে তাতে মজার মন্তব্য করছেন অনেকে।

প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডোর ভিডিও ব্লগিং এর লিংক

বিবিসি ইন্দোনেশিয়ার সোশ্যাল মিডিয়া প্রডিউসার ক্রিস্টিন ফ্রান্সিসকা বলছেন, প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো ভিডিও ব্লগিং খুবই পছন্দ করেন।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে তিনি 'ভ্লগিং' শুরু করেন।

ফুটবল খেলা দেখতে স্টেডিয়ামে গিয়ে এমনকি রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়েও তাঁকে ভ্লগিং করতে দেখা যায়।

ইন্দোনেশিয়ার একজন সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপার্ট এন্ডা নাসুটিয়ন বলছেন, প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো আসলে সনাতনী মিডিয়ার বাইরে গিয়ে কিভাবে জনগণের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা যায়, তারই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন এই ভিডিও ব্লগিং এর মাধ্যমে।

কিন্তু একজন রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে নৈশভোজ এভাবে 'ভ্লগিং' করা কতটা যুক্তিযুক্ত?

এন্ডা নাসুটিয়ান স্বীকার করছেন যে প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো যা করছেন তা ঠিক প্রচলিত রীতির বিরোধী।

"কিন্তু এর মাধ্যমে তিনি আসলে নিজেকে এবং বাদশাহ সালমানকে এমনভাবে তুলে ধরতে চাইছেন যে তারাও আর দশজন সাধারণ মানুষের মতো। নিউজ মিডিয়ার সামনে একটা আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেয়ার চাইতে এটি অনেক বেশি কার্যকরী।"