ম্যানচেস্টার হামলার 'আলামতের' ছবি প্রকাশ করায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি ক্ষোভ

ছবির কপিরাইট New York Times
Image caption নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, হামলার ঘটনাস্থল থেকে এসব তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টারে হামলার ঘটনাস্থলের ফাঁস হওয়া ছবি ও তথ্য প্রকাশ করায় নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকার সমালোচনা করেছে ব্রিটিশ পুলিশ।

কর্মকর্তা বলছেন, এগুলো ফাঁস হওয়ার ফলে পুলিশের তদন্ত কাজকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে এবং মার্কিন গোয়েন্দা বাহিনীর সাথে পারস্পরিক আস্থা বিনিময়ের ক্ষেত্রে সংকট তৈরি করছে। ওই ছবিটিতে বোমার রক্তমাখা টুকরো, ব্যাটারি এবং বিস্ফোরক জাতীয় বস্তু দেখা যায়।

নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, বোমাটি তুলনামূলক উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন। এছাড়া হামলার বেশকিছু তথ্য মার্কিন বিভিন্ন সূত্র মারফত প্রকাশ করা হয়েছে। বিষয়টি ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ মোটেই পছন্দ করেনি।

বৃহস্পতিবার নেটোর সম্মেলনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে তথ্য ফাঁসের বিষয়টি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সামনে তুলে ধরবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাম্বার রাড বলেন, "ব্রিটিশ পুলিশ অনুসন্ধান সংক্রান্ত কার্যক্রমের স্বার্থে তথ্যের ক্ষেত্রে তারাই নিয়ন্ত্রণ রাখতে চায় । ফলে এটা অন্যান্য মাধ্যমে প্রকাশিত হলে সেটা অবশ্যই বিরক্তিকর"।

এদিকে ম্যানচেস্টার এরিনাতে আত্মঘাতী হামলাকারী সালমান আবেদির বাবা এবং ভাইকে লিবিয়ায় আটক করা হয়েছে।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ম্যানচেস্টার হামলায় নিহতদের স্মরণে অনেকেই সেইন্ট অ্যান স্কয়ারে জড়ো হন।

ব্রিটেনে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি, নামছে সেনাবাহিনী

ম্যানচেস্টার হামলাকারীর নাম সালমান আবেদি

ব্রিটেনের সাম্প্রতিক সন্ত্রাসী হামলাগুলো কীধরনের ছিল

তার আরেক ভাইকে ম্যানচেস্টার থেকেই আটক করা হয়। সব মিলিয়ে ব্রিটেনের পুলিশ মোট সাতজনকে আটক করেছে।

হামলাকারী সালমান আবেদির বিষয়ে তথ্য প্রকাশ করায় এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি বিরক্তি প্রকাশ করেন অ্যাম্বার রাড।

"এমনটা আর কখনোই ঘটা উচিত নয়"- বলেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

পুলিশের ধারণা সোমবার রাতের ওই হামলার পেছনে একটি নেটওয়ার্ক কাজ করেছে।

নিরাপত্তা বাহিনীর বিশ্বাস, হামলায় ব্যবহৃত বিস্ফোরক হামলাকারীর নিজের তৈরি নয়। বোমার তৈরির সূত্র খুঁজে বের করতে তাদের জোর তৎপরতা চলছে।

এদিকে মার্কিন গায়িকা আরিয়ানা গ্রান্ডে যার কনসার্ট শেষ হতে না হতেই ওই বিস্ফোরণ, তিনি তার ইউরোপ ট্যুর বাতিল ঘোষণা করেছেন।

তার আরো কয়েকটি কনসার্টের কথা থাকলেও ম্যানচেস্টার হামলার পর তিনি ফ্লোরিডায় তার বাড়িতে ফিরে গেছেন।

সম্পর্কিত বিষয়