সিরিয় বাহিনীর ওপর যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় নিহত ৬২

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র বাহিনী

যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী স্বীকার করেছে যে তারা সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে সিরিয় বাহিনীর অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে।

যদিও তাদের দাবি তারা জেনে শুনে এ হামলা চালায়নি এবং সিরিয় বাহিনীর অবস্থান সম্পর্কে তথ্য পাওয়ার পরপরই বিমান হামলা বন্ধ করে দেয়া হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ড থেকে বলা হয়েছে তাদের বিমানগুলোর পাইলটরা ভেবেছিলেন যে তারা ইসলামিক স্টেট জঙ্গিদের লক্ষ্য করেই হামলা চালাচ্ছেন।

কিন্তু যখনি রাশিয়ার কর্মকর্তাদের কাছ থেকে তথ্য পেয়েছে যে তারা সিরিয় বাহিনী ও তাদের ব্যবহৃত যানবাহনের ওপর হামলা করছে তখনি তারা তা বন্ধ করেছে।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption সিরিয়ায় সংঘাতে বাড়িঘর ছাড়া হয়েছে বহু মানুষ

রাশিয়ার সেনাবাহিনী বলছে সিরিয়ার দেইর আল জৌর শহরের কাছে যুক্তরাষ্ট্র বাহিনীর এই হামলায় সিরিয় সরকারি বাহিনীর অন্তত ৬২ জন নিহত হওয়ার পাশাপাশি আহত হয়েছে আরও অনেকে।

এরপরই এ বিষয়ে আলোচনার জন্য নিরাপত্তা পরিষদের জরুরী সভা ডাকতে জাতিসংঘের প্রতি আহবান জানায় রাশিয়া।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে যুক্তরাষ্ট্রের এ হামলা সিরিয়ার বর্তমান যুদ্ধবিরতি চুক্তিকে ঝুঁকিতে ফেলবে এবং এ হামলা আইএস জঙ্গিদেরই সহায়তা করবে ।

সিরিয় সরকারের পক্ষ থেকেও একই ধরণের মন্তব্য করা হয়েছে।

রাশিয়ার অভিযোগ যুদ্ধবিরতি কার্যকর থাকা সত্ত্বেও সিরিয়ায় সরকারি বিরোধী হিসেবে পরিচিতি বিদ্রোহীদের পক্ষ থেকে গত চব্বিশ ঘণ্টায় ৫০টিরও বেশি আক্রমণ চালানো হয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্র তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেনা।

যদিও যুক্তরাষ্ট্র বলছে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই যুদ্ধবিরতি কার্যকর রয়েছে।