অন্য সূর্যকে কেন্দ্র করে নতুন গ্রহের জন্ম হচ্ছে
আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

বিজ্ঞানের আসর

আমাদের এই সৌরজগতে যেমন একটি সূর্য আছে তেমনি এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ডে আছে আরো বহু অগণিত সূর্য।

সেসব সূর্যের চারপাশে আছে অসংখ্য গ্রহ ও নক্ষত্র।

শুধু তাই নয়, এসব সূর্যকে ঘিরে, নতুন নতুন গ্রহের জন্ম হচ্ছে। আবার মৃত্যু বা ধ্বংসও হয়ে যাচ্ছে।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা এরকম একটি শিশু গ্রহের খোঁজ পেয়েছেন যেটি আমাদের সূর্য নয়, বরং অন্য একটি সূর্যকে কেন্দ্র করে এখনও গড়ে উঠছে।

ওই সূর্যটি আমাদের পৃথিবী থেকে ১৭৬ আলোকবর্ষ দূরে।

জাপানের ইবারাকি বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী চিলিতে রেডিও টেলিস্কোপের সাহায্যে জন্মগ্রহণ-রত এই গ্রহটির সন্ধান পেয়েছেন।

তারা ধারণা করছেন, এটি বরফের তৈরি। আমাদের সৌরজগতের দুটো গ্রহ- ইউরেনাস ও নেপচুনের সাথে এর মিল আছে।

যে সূর্যটিকে কেন্দ্র করে এই গ্রহটি গড়ে উঠছে সেটি আকারে খুব বেশি বড় নয়। বিজ্ঞানের ভাষায় ডোয়ার্ফ স্টার বা বামন তারকা। কমলা রঙের।

ধারণা করা হয়, এই সূর্যটি ১০ মিলিয়ন বছরের মতো পুরনো।

নবগঠিত এই গ্রহটি নিয়ে শুনুন যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার বিজ্ঞানী ড. অমিতাভ ঘোষের সাক্ষাৎকার।

কোরবানির রক্ত ও বৃষ্টি

বাংলাদেশের রাজধানীতে বৃষ্টির পানি ও কোরবানির পশুর রক্ত মিলে যে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছিলো, তার ফলে নানা রকমের অসুখ বিসুখ হতে পারে বলে চিকিৎসকরা সতর্ক করে দিয়েছেন।

ঈদের দিন প্রবল বৃষ্টির কারণে শহরের বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় এরকম রক্ত-মিশ্রিত এরকম লাল রঙের পানিতে ডুবে গিয়েছিলো।

পরে এই ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। এসব ছবিকে বলা হয় রিভার্স অফ ব্লাড বা রক্তের নদী।

চিকিৎসকরা বলছেন, যারা এই পানির সংস্পর্শে এসেছে, বিশেষ করে শিশুদের, চর্মরোগ থেকে শুরু করে পানি-বাহিত নানা ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে।

শুনুন শিশু বিশেষজ্ঞ এবং শিশু নবজাতক জেনারেল হাসপাতালের একজন চিকিৎসক ড. খালেদ নূরের সাক্ষাৎকার:

বিজ্ঞানের আসর পরিবেশন করছেন মিজানুর রহমান খান: