যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ধেয়ে আসা প্রবল ঘূর্ণিঝড় ম্যাথিউ ইতোমধ্যেই হাইতি ও কিউবায় আঘাত হেনেছে

হাইতির দক্ষিণে কিছু এলাকায় বন্যায় প্লাবিত হয়েছে ছবির কপিরাইট AFP
Image caption হাইতির দক্ষিণে কিছু এলাকায় বন্যায় প্লাবিত হয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ধেয়ে আসা প্রবল ঘূর্ণিঝড় ম্যাথিউ ইতোমধ্যেই হাইতি ও কিউবায় আঘাত হেনেছে। ইতিমধ্যেই অন্তত ১১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ঝড়ে হাইতির যোগাযোগ ব্যবস্থার প্রায় সিংহভাগই ভেঙে পড়েছে।

ক্ষয়ক্ষতির তথ্য নিরূপণের জন্য ত্রাণ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো এখনো অপেক্ষায় আছে। এদিকে ফ্লোরিডার সরকার জানিয়েছে, তাদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতন এতো ব্যাপক সংখ্যক মানুষকে সরিয়ে নিতে হচ্ছে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন সাইয়েদা আক্তার।

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলের দিকে প্রবল বেগে ধেয়ে আসতে থাকা ঘূর্ণিঝড় ম্যাথিউ-এর কারণে ফ্লোরিডা ও সাউথ ক্যারোলাইনায় লাখ লাখ মানুষকে তাদের বাড়িঘর থেকে সরে যেতে বলেছে কর্তৃপক্ষ।

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption হাইতির শহরতলীর চিত্র

ঘূর্ণিঝড় উপদ্রুত এলাকা থেকে পালাতে গিয়ে চার্লসটন সিটি ও সাউথ ক্যারোলাইনায় সড়কে দীর্ঘ জ্যামের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে।

ফ্লোরিডা বাসীকে সতর্ক করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, 'এই ঝড় সঙ্কটজনক'। পাশাপাশি তিনি আরো বলেছেন যে, বৃহস্পতিবার সকাল নাগাদ এই ঝড় ফ্লোরিডাতে তার ছাপ রেখে যাবে।

আসছে রবিবারে যুক্তরাষ্ট্রে চলমান প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচারণার যেসব অনুষ্ঠান ছিল তার সবই বাতিল করা হয়েছে।

ছবির কপিরাইট AP
Image caption রাস্তায় পানি উঠে পড়ায় মানুষের ভোগান্তি

কিউবার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের দেশে ঘূর্ণিঝড়ে এখনো কেউ প্রাণ হারাননি। তবে, রাস্তার ওপর বড় বড় পাথর পড়ে অনেক জায়গায় যোগাযোগ ব্যবস্থা প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে।

কিউবার মতন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা ও সাউথ ক্যারোলাইনায় যাতায়াতের প্রায় সকল পথই বন্ধ হয়ে আছে। এই দুই এলাকা ছেড়ে দলে দলে মানুষ নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে যাবার সময় তারা সড়কে বহু গাড়ির জ্যামে আটকা পড়েছে।

সাউথ ক্যারোলাইনার আটলান্টিক সাগরের তীরবর্তী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে।