২২ বছরে কি পেলেন ইলিয়াস কাঞ্চন ?

Image caption ইলিয়াস কাঞ্চন

বাংলাদেশে প্রতিবছর শত-শত মানুষ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত কিংবা মারাত্মকভাবে আহত হয়।

মানুষ যাতে নিরাপদে সড়কে চলাচল করতে পারে সেজন্য চলচ্চিত্রের এক সময়কার জনপ্রিয় নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন গত ২২ বছর ধরে নিরাপদ সড়কের জন্য নানা কর্মসূচী পালন করে আসছেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রীর মৃত্যুর পর তিনি এ কর্মসূচী হাতে নিয়েছিলেন। স্ত্রীর মৃত্যুর দিনটিকে তিনি নিরাপদ সড়ক দিবস হিসেবে পালন করেন।

আজও এই কর্মসূচী পালন করবে মি: কাঞ্চনের সংগঠন নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন।

কিন্তু গত বাইশ বছর ধরে এ কর্মসূচীর পালন করলেও এর কোন ইতিবাচক ফলাফল কি তিনি দেখতে পেয়েছেন?

জবাবে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, "এক সময় পরিবহন মালিক শ্রমিকরা আমাকে দেখতেই পারতোনা। তারা মনে করতো আমি ভুল কাজ করছি। তাদের ধারণা ছিলও দুর্ঘটনা হলও কপালের লেখা। সেটা থেকে এখন তারা বেরিয়ে এসেছে"।

Image caption সড়ক দুর্ঘটনা প্রায়শই বাংলাদেশে প্রাণ হারায় মানুষ

শুরুর দিকে কেমন ছিল অভিজ্ঞতা ? জবাবে তিনি বলেন, "খুবই খারাপ। তাদের ধারণা ছিলও আমি তাদের প্রতিপক্ষ"।

মিস্টার কাঞ্চন নিজের অভিজ্ঞতার বর্ণনা দিয়ে বলেন, "গত বছর এক অনুষ্ঠানে খুলনায় একজন ড্রাইভার আমাকে ধরে কেঁদে ফেলে এবং বলে যে আপনাকে ভুল বুঝেছিলাম কারণ আপনার সম্পর্কে এতো খারাপ শুনেছি যে মনে হতো রাস্তায় পেলে আপনার ওপর দিয়েই গাড়ি চালিয়ে দিবো"।

তিনি বলেন এমন কোন জেলা উপজেলা বাকী নেই যেখানে নিরাপদ সড়কের প্রচারণায় অংশ নিতে তিনি যাননি এবং এখন পরিস্থিতি পাল্টিয়েছে এবং চালকরাও আগের চেয়ে অনেক সচেতন হয়েছে।