মুম্বাইয়ের মাজারের দরজা নারীদের জন্য উন্মুক্ত হলো

মুম্বাইয়ের হাজী আলী দরগাহ ছবির কপিরাইট AFP
Image caption মুম্বাইয়ের হাজী আলী দরগাহ নামে সুপরিচিত ওই মাজারে প্রবেশের জন্য আন্দোলন করছে মুসলিম নারীরা।

ভারতের মুম্বাইয়ে সুপরিচিত একটি মাজারের পরিচালনা পর্ষদ বা ট্রাস্ট সুপ্রিম কোর্টকে বলেছে, মাজারে নারীদের প্রবেশে হাইকোর্টের রায় তারা মেনে নেবে।

হাজী আলী দরগাহ নামে সুপরিচিত ওই মাজারটিতে নারীদের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা বাতিল করে দেয় মুম্বাই হাইকোর্ট, গত অগাস্ট মাসে ।

২০১২ সালে হাজী আলীর দরগাহ নামে পরিচিত এই মাজারে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছিল এর ট্রাস্টের পক্ষ থেকে।

কিন্তু অগাস্টে ওই নিষেধাজ্ঞা বাতিল করে রায় দেয় মুম্বাই হাইকোর্ট, আর আজ মাজার কর্তৃপক্ষ রায় মেনে নেয়ার কথা জানালো। এর ফলে মাজারটির দরজা নারীদের জন্য খুলে গেল।

নারী অধিকার কর্মীরা মাজার পরিচালনা পর্ষদ বা ট্রাস্টের এমন পদক্ষেপকে 'বিরাট বিজয়' হিসেবে উল্লেখ করছে।

"আমরা কৃতজ্ঞ যে আদালত আমাদের পাশে ছিল। পুরুষ নিয়ন্ত্রিত ধর্মীয় উপাসনালয়গুলোতে পুরুষতান্ত্রিক মনোভাবের বিরুদ্ধে আমাদের যে লড়াই তাতে আমরা আদালতকে পাশে পেয়েছি, এটা আমাদের বড় অর্জন"-বিবিসিকে বলছিলেন ভারতীয় মুসলিম মহিলা আন্দোলনের কর্মী জাকিয়া সোমান।

হাজী আলীর দরগায় ট্রাস্টের পক্ষ থেকেই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে বলা হয়েছিল, নারীদের মাজারে প্রবেশ ইসলাম সম্মত নয়।

আর এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আদালতের আশ্রয় নিয়েছিল বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ভারতীয় মুসলিম মহিলা আন্দোলন।

সেই প্রেক্ষাপটে আদালত নিষেধাজ্ঞা বাতিল করে দেয়।

মুম্বাই হাইকোর্ট তার রায়ে বলেছিল, মাজারটিতে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা সংবিধানকে লংঘন করে এবং এটি বৈষম্যমূলক।

সম্পর্কিত বিষয়