রোহিঙ্গাদের উপর সহিংসতা: নানা দেশে প্রতিবাদের ঝড়

রোহিঙ্গা ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption কুয়ালালামপুরে মিয়ানমার দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভরত একদল রোহিঙ্গাকে দেখা যায় অং সান সুচির ছবিতে জুতা দিয়ে আঘাত করতে।

মিয়ানমারে ক্রমবর্ধমান সহিংসতা ও এর জেরে হাজার হাজার রোহিঙ্গা মুসলমানের বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হওয়ার ঘটনায় পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রতিবাদ হচ্ছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হচ্ছে, শুক্রবার মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে তারা চলমান পরিস্থিতিতে উদ্বেগ জানানোর জন্য অচিরেই কুয়ালালামপুরে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করবে।

তবে কবে এটা করা হবে তার সময়সীমা উল্লেখ করা হয় নি।

মিয়ানমারে সহিংসতার প্রতিবাদে একটি আঞ্চলিক টুর্নামেন্ট থেকে দল প্রত্যাহারের কথাও ভাবছিল মালয়েশিয়া, কিন্তু পরে সেই চিন্তা থেকে সরে আসে তারা।

শুক্রবার কুয়ালালামপুরে শত শত রোহিঙ্গা মুসলমান একটি বিক্ষোভে যোগ দেয়।

এর আগে গত বুধবার ঢাকায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছিল বাংলাদেশ।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ব্যাংককের মিয়ানমার দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ।

ঢাকায় গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন সংস্থা বিভিন্ন ভাবে প্রতিবাদ করছে, প্রতিবাদ হয়েছে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংকক এবং ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তা

জাকার্তার বিক্ষোভকারীরা মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেতা অং সান সুচির নোবেল শান্তি পুরষ্কার প্রত্যাহারের দাবি জানায়।

বার্তা সংস্থা এএফপি বলছে, মিজ সুচির বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষা দিতে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ডেভিড ম্যাথিয়েনসন বলছেন, রোহিঙ্গাদের পক্ষে কথা বলতে মিজ সুচির ব্যর্থতার কারণে যারা তাকে মানবাধিকারের প্রতীক বলে মনে করত তারা বিভ্রান্ত হচ্ছে।

তবে রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে মিজ সুচি মুখে কুলুপ এঁটে থাকায় কেউ কেউ বলছেন, এতে প্রমাণ হচ্ছে সেনাবাহিনীর উপর অং সান সুচির কোন নিয়ন্ত্রণই নেই।

আরও পড়ুন:

বার্মা মানে নিশ্চিত মৃত্যু, বলছেন পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা

মিয়ানমার রোহিঙ্গা মুসলমানদের জাতিগতভাবে নিধন করছে: জাতিসংঘ

বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের পুশ-ব্যাক করছে: এ্যামনেস্টি

সম্পর্কিত বিষয়