পর্ণ সাইট: তারানা হালিম বলছেন তালিকা হবে না

তারানা হালিমের ফেসবুক পেজ ছবির কপিরাইট ফেসবুক
Image caption তারানা হালিমের ফেসবুক পেজ

বাংলাদেশে পর্ণ সাইটে প্রবেশকারী ব্যক্তিদের পরিচয় প্রকাশ করার কথা ভাবছে সরকার, সোমবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমকে উদ্ধৃত করে এমন একটি সংবাদ প্রকাশিত হয় বিভিন্ন দৈনিক ও অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোতে।

এরপর এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয় নানারকম আলোচনা।

কিন্তু ঐ বক্তব্য তিনি দেননি জানিয়ে নিজের ফেসবুক পেজে আজ এক পোষ্টে প্রতিমন্ত্রী লিখেছেন, "পর্ণ সাইটের প্রবেশকারীদের নামের তালিকা করার প্রশ্নই আসেনা। ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষায় আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। পর্ণ সাইটের প্রবেশকারীদের নামের তালিকা করার কোন কথা কখনই বলিনি।"

বিভিন্ন প্রকাশিত খবরে জানা যাচ্ছে, সোমবার সংবাদ সংস্থা বাসসের সাথে আলাপকালে তারানা হালিম বলেছিলেন, ইন্টারনেট সেবা দানকারীদেরকে দেশের অভ্যন্তরে পরিচালিত পর্ণ সাইটগুলো বন্ধ করতে হবে।

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption ইন্টারনেট সেবা দানকারীদেরকে দেশের অভ্যন্তরে পরিচালিত পর্ণ সাইটগুলো বন্ধ করতে বলেছে সরকার

কিন্তু আন্তর্জাতিক সাইটগুলোর ক্ষেত্রে এমন একটি কৌশল গ্রহণের উপর গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে, যাতে ওইসব সাইটে প্রবেশকারীদের পরিচয় সরকারের কাছে প্রকাশ পাবে।

পরিচয় প্রকাশ হওয়ার ভয়ে লোকে পর্ণ সাইটে প্রবেশে বিরত থাকবে বলে উল্লেখ করেছিলেন প্রতিমন্ত্রী।

এরপর প্রতিমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পক্ষে বিপক্ষে ফেসবুকে আসতে থাকে নানা আলোচনা।

টিনা নন্দী নামে একজন লিখেছেন, "নাগরিকের যৌনজীবন নিয়ন্ত্রন করাও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য দরকারী! তারচেয়ে সাঁওতালদের বাড়িঘরে আগুনের সুত্রপাতকারীদের নামের তালিকা প্রকাশ করা বেশি জরুরী।"

কেউ ঠাট্টা করে বন্ধুদের সাবধান হবার বার্তা দিয়েছেন। আবার অনেকেই লিখেছেন, তারানা হালিমের বক্তব্যকে সমর্থন করে।

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption পর্ন সাইট বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

কেউ লিখেছেন, তারানা হালিম নারী হবার কারণেই বিষয়টি নিয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে।

কেউ পর্ণ সাইট বন্ধের উদ্যোগের জন্য প্রতিমন্ত্রী ধন্যবাদ জানিয়েছেন। রিফাতুল ইসলাম নাজমুল নামেএকজন লিখেছেন, "যদি এতে কিছু হলেও পর্ন সাইট ভিজিটকারীর সংখ্যা কমে।"

এদিকে, আজ দুপুরে তারানা হালিম নিজের ফেসবুক পাতায় একটি পোষ্ট দিয়েছেন।

"পর্ণ সাইটের প্রবেশকারীদের নামের তালিকা করার প্রশ্নই আসেনা। ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষায় আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। পর্ণ সাইটের প্রবেশকারীদের নামের তালিকা করার কোন কথা কখনই বলিনি। এটি হবেও না। টেকনিক্যালিও সম্ভব নয়।"

তারানা হালিম আরো লিখেছেন, এমন তালিকা করা হবে, এ ধরণের রটনা পড়ে সত্যাসত্য যাচাই না করেই অনেকে নিজ নিজ ফেসবুক আইডিতে কিছু কিছু ব্যক্তি নেতিবাচক পোস্ট দিতে শুরু করলেন- ট্রল করা শুরু করলেন। এবং সেখানে অনেকেই সভ্যতা, ভব্যতার মাত্রাও অতিক্রম করেছেন বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

তিনি লিখেছেন, পদে থাকলেও, একজন মানুষের মানবিক অনুভূতিগুলোর প্রতি সবার শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত।