সাঁওতালদের বাড়িতে আগুন:বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

Image caption পুলিশ ঘর-বাড়িতে আগুন দিচ্ছে, তার ছবিও তোলা হচ্ছে।

বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলীয় জেলা গাইবান্ধায় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাঁওতালদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনা খতিয়ে দেখতে বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

বুধবার হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এ নির্দেশনা দেয়। ঘটনা তদন্তের জন্য চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে অগ্নিসংযোগের ঘটনাটি তদন্ত করে দোষীদের খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

আগামী ১৫দিনের মধ্যে এ ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতালদের উচ্ছেদের সময় তাদের ঘরবাড়িতে পুলিশের আগুন ধরিয়ে দেয়ার ভিডিও আল-জাজিরা টিভি সম্প্রতি প্রকাশ করেছে, যেটি এখন ইউটিউব হয়ে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় জায়গা পাচ্ছে।

তবে যে ভিডিওটি প্রকাশ হয়েছে, সেটি সঠিক নয় বলে দাবি করেছে স্থানীয় পুলিশ। এমন প্রেক্ষাপটে আজ হাইকোর্ট সে ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

ছবির কপিরাইট AlJAZEERA
Image caption এ ছবি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়।

সাঁওতালরা বলেছেন, গত ৬ই নভেম্বর তাদের উচ্ছেদের সময় সংঘর্ষের এক পর্যায়ে ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের সাথে নিয়ে পুলিশ ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয় -- তারা নিজেরা তা দেখেছেন।

গোবিন্দগঞ্জে চিনিকলের বিরোধপূর্ণ জায়গা থেকে সাঁওতালদের উচ্ছেদের ঘটনা নিয়ে আল-জাজিরা টেলিভিশনে যে প্রতিবেদন প্রচার হয়, সেখানে ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাঁওতালদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হচ্ছে। সাঁওতালদের বসতির পাশেই দাঁড়িয়ে অনেক পুলিশ গুলি করছে এবং কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ছে।

সংঘর্ষের এক পর্যায়ে তাদেরই মধ্য থেকে মাথায় হেলমেট এবং বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পড়া একজন পুলিশ সদস্য সাঁওতালদের বাঁশ এবং ছনের তৈরি ঘরের কাছে গিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে। মুহূর্তেই আগুন ধরে যায় এবং পাশের ছনের ঘরগুলোতে তা ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে সিভিল ড্রেসে কয়েকজনকে জনকে দেখা যাচ্ছে।