আরবীতে কথা বলায় নামিয়ে দেয়া হলো বিমান থেকে

ইউটিউব অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা অ্যাডাম সালেহের ভিডিও ছবির কপিরাইট অ্যাডাম সালেহ ইউটিউব পেজ
Image caption ইউটিউব অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা ভিডিওতে অ্যাডাম সালেহ ঐ অভিযোগ তোলেন

টেলিফোনে মায়ের সাথে আরবীতে কথা বলায় ইউটিউব তারকা অ্যাডাম সালেহকে ডেল্টা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট থেকে নামিয়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

যদিও বিমান কর্তৃপক্ষ বলছে, অন্য যাত্রীদের বিরক্ত করার অভিযোগে তাকে প্লেন থেকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে।

ইউটিউব অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা অ্যাডাম সালেহের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

সেখানে এই ইউটিউব তারকাকে দেখা যায়, বিমান যাত্রীদের মাঝে দাড়িয়ে তাকে অন্যায়ভাবে নামিয়ে দেবার জন্যে অভিযোগ করতে।

ভিডিওতে তিনি বলছেন, "আমাদের বের করে দেয়া হয়েছে, কেননা আমারা ভিন্ন ভাষায় কথা বলছিলাম। এটা অবিশ্বাস্য, এটা ২০১৬ সাল!

ছবির কপিরাইট স্ক্রিনশট
Image caption ইউটিউবে পোষ্ট করা অ্যাডামের বিভিন্ন বিদ্রূপাত্মক ভিডিও

আমি আরবীতে আমার মা-এর সাথে কথা বলছিলাম, বন্ধুর সাথে বলছিলাম। কয়েকজন পাকিস্তানী, এমনকি আমেরিকান কয়েকজন যাত্রীও বিমানের পাইলটকে বলেছেন এটা অন্যায়।

আমি খুবই দুঃখ পেয়েছি, আমি এটা বিশ্বাসই করতে পারছিনা!"

একপর্যায়ে তার কণ্ঠ আবেগে আর কান্নায় রুদ্ধ হয়ে আসে।

ঘটনাটি ঘটেছে লন্ডনের হিথরো এয়ারপোর্টে অপেক্ষারত ডেল্টা এয়ারলাইন্সের লন্ডন-নিউইয়র্ক ফ্লাইটে।

ছবির কপিরাইট টুইটার
Image caption এ ঘটনা নিয়ে টুইটারে অ্যাডামের পোষ্ট

ইউটিউবে বিদ্রূপাত্মক ভিডিও পোষ্ট করে তারকা বনে যাওয়া অ্যাডাম সালেহ বিবিসি'কে জানান, বিমান ছাড়ার আগে যখন তিনি মোবাইলফোনে তার মা-এর সাথে আরবীতে কথা বলছিলেন, তখন একজন মহিলা সহযাত্রী অস্বস্তি প্রকাশ করেন।

ডেল্টা এয়ারলাইন্স এক বিবৃতিতে বলছে, 'কেবিনে ঝামেলা করার জন্য দুই যাত্রীকে ফ্লাইট থেকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে। তাদের কারণে আরো কুড়ি জন যাত্রী অস্বস্তির মধ্যে পরেছিলেন।'

বিবৃতিতে বলা হয়েছে আসল ঘটনা পর্যালোচনা করে দেখা হচ্ছে এবং যে কোনো বৈষম্যের অভিযোগ খুব গুরুত্বের সাথে দেখা হয় বলে জানিয়েছে এই মার্কিন বিমান সংস্থা।

এর আগে অ্যাডাম সালেহ বিমানে মুসলিমদের সাথে অন্য যাত্রীরা কেমন আচরণ করে সেনিয়ে বেশকিছু ভিডিও ধারণ করে পোষ্ট করেছিল।