১৮ বছর পর পেট থেকে অপারেশনের কাঁচি উদ্ধার

ছবির কপিরাইট (Universal Images Group via Getty Images
Image caption অপারেশনের সময় এসব ছুরি কাঁচি ব্যবহার করা হয়

অপারেশনের সময় পেটের ভেতরে ছুরি কাঁচি ইত্যাদি রেখে দিয়ে সেলাই করে দেওয়ার কথা আমরা শুনেছি।

এও শুনেছি অপারেশনের কিছুক্ষণ পর ডাক্তাররা তাদের ভুল বুঝতে পেরে তাকে আবারও অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে সেসব বের করে আনার কথা।

কিম্বা পেটে ব্যথার অভিযোগ নিয়ে রোগী আবার ডাক্তারের কাছে গেলে পরীক্ষা করে দেখা গেছে ভেতরে কিছু একটা রেখে দেওয়া হয়েছিলো।

কিন্তু ১৮ বছর আগে অপারেশনের সময় পেটের ভেতরে রেখে দেওয়া এক জোড়া কাঁচি বের করে আনার কথা কি কখনও শুনেছেন?

হ্যাঁ, এরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে ভিয়েতনামে।

ওই ব্যক্তির নাম মা ভান নাত। বয়স ৫৪

গত মাসে এক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি আহত হন।

তারপর তার শরীরে আলট্রাসাউন্ড স্ক্যান করলে ডাক্তাররা দেখতে পান তার মলাশয়ের কাছে ঝকঝকে ছুরি।

একটি নয়, দুটি। লম্বায় প্রায় ১৫ সেন্টিমিটার বা ছয় ইঞ্চির মতো।

নিশ্চিত হওয়ার জন্যে আরো একবার স্ক্যান করা হয় তার শরীরে।

চিকিৎসকরা বলছেন, ১৯৯৮ সালে মা ভান নাতের শরীরে অপারেশনের সময় ভুলে তার পেটের ভেতরে এই কাঁচি দুটো রেখে দেওয়া হয়েছিলো।

তখনও সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার পর তাকে অপারেশন করা হয়েছিলো আর তখনই এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

ভিয়েতনামের দক্ষিণাঞ্চলীয় একটি প্রদেশে এই ঘটনা ঘটেছে।

ডাক্তাররা বলছেন, কাঁচি দুটোর হাতলে সামান্য মরচে পড়ে গেছে এবং দুটোই ওই ব্যক্তির পেটের ভেতরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গের সাথে জড়িয়ে গেছে।

তারপর তার শরীরে তিন ঘণ্টা ধরে চালানো এক অপারেশনের পর তলপেট থেকে দুটো কাঁচিই বের করে আনা হয়েছে। এজন্যে রাজধানী হ্যানয় থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে আসা হয়েছিলো।

বলা হচ্ছে, পেটের ভেতরে ছুরি দুটো নিয়েই গত প্রায় দুই দশক ধরে তিনি খাওয়া দাওয়াসহ সবকিছু ঠিকঠাক মতোই করে আসছিলেন।

তিনি জানান, মাঝে মাঝে তার শুধু একটু পেটে ব্যথা হতো।

এছাড়া তিনি আর কিছুই বুঝতে পারেন নি।

মি. মা এখন সেরে উঠছেন। ধারণা করা হচ্ছে আগামী সপ্তাহে তিনি হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফিরে যেতে পারেন।

এই ঘটনা তদন্ত করে দেখার জন্যে নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

সম্পর্কিত বিষয়