আরব আমিরাতে বাঘ পোষার ওপর নিষেধাজ্ঞা

আরব আমিরাতে পোষা বাঘ রাখাকে আভিজাত্যের বিষয় বলে মনে করা হয়। ছবির কপিরাইট রয়টার্স
Image caption আরব আমিরাতে পোষা বাঘ রাখাকে আভিজাত্যের বিষয় বলে মনে করা হয়।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকার জানিয়েছে, বাঘ এবং সিংহসহ বিভিন্ন ধরনের বন্য প্রাণী নিজ গৃহে পোষা যাবে না।

এ ধরনের বন্যপ্রাণী পোষার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে সে দেশে।

আরব আমিরাতের সমাজের নিজের বাড়িতে পোষা চিতাবাঘ রাখা আভিজাত্যের বিষয় বলে মনে করা হয়।

কিন্তু এখন থেকে বাড়িতে এ ধরনের পোষা প্রাণী রাখলে জেল-জরিমানা করা হবে।

আরব আমিরাতের অনেক বাসিন্দা নিজের পোষা চিতা বাঘের ছবি বিভিন্ন সময় সোশ্যাল মিডিয়াতেও পোস্ট করেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন ছবি দেখা গেছে যেখানে গাড়ির পেছনে পোষা সিংহ বসে আছে।

এছাড়া সমুদ্র সৈকতে পোষা চিতাবাঘ ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে।

কিন্তু এ ধরনের প্রাণী স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়ানোর বিপদ সম্পর্কে উদ্বিগ্ন হয়েছে কর্তৃপক্ষ।

নতুন আইনে বলা হয়েছে, বিপদজনক সব ধরনের বন্যপ্রাণী ক্রয় করা কিংবা বাড়িতে রাখা যাবেনা ।

এসব প্রাণী এখন থেকে শুধুই চিড়িয়াখানা, বন্য প্রাণী পার্ক এবং গবেষণা কেন্দ্রে রাখা যাবে।

কেউ যদি এ ধরনের বন্য প্রাণী জনসম্মুখে নিয়ে বের হয় তাহলে তাকে ছয় মাসের জেল এবং পাঁচ লাখ দিরহাম জরিমানা করা হবে।

শুধু বন্য প্রাণী ছাড়াও যারা বাড়িতে পোষা কুকুর রাখেন তাদেরও অনুমতি নিতে হবে।

তবে কুকুরকে অবশ্যই টিকা দিতে হবে, যাতে কুকুরের কামড়ে কেউ রোগাক্রান্ত না হয়।

কুকুরকে টিকা না দিলে ১০ লাখ দিরহাম পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে।

সম্পর্কিত বিষয়