"ছেলে দোষ করে থাকলে তার শাস্তি হয়েছে, লাশ চাই না"

বন্দুকযুদ্ধে মারজানের নিহত হওয়ার খবরের পর পাবনার বাড়িতে কৌতুহলী মানুষের ভিড় ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption বন্দুকযুদ্ধে মারজানের নিহত হওয়ার খবরের পর পাবনার বাড়িতে কৌতুহলী মানুষের ভিড়

"আমার ছেলে যদি দোষ করে থাকে, তাহলে তার শাস্তি হয়েছে। আমার আর বলার কিছুই নেই।"

কান্না জড়িত গলায় একথাই বললেন কথিত শীর্ষ জঙ্গী মারজানের মা সালমা খাতুন। পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, গুলশানে গত বছরের জুলাইতে যে জঙ্গী হামলা হয়েছিল তার অন্যতম হোতা ছিলেন নুরুল ইসলাম মারজান।

শুক্রবার ভোররাতে ঢাকার মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ এলাকায় এক বন্দুকযুদ্ধে মারজান এবং তার এক সহযোগী নিহত হন বলে দাবি করছে পুলিশ।

সালমা খাতুন জানান, তাঁর ছেলে দোষ করেছে, সে দোষী, সে অন্যায়কারী। তার লাশ তিনি চান না। তবে সরকার যদি স্বইচ্ছায় লাশ দেয়, দেবে। সরকারের কাছে তাঁর কোন আবেদন, আপত্তি কোন কিছুই নেই। তিনি লাশ চাননি।

অনেকটা একই কথাই বলেছেন মারজানের বাবা নিজামউদ্দীন। তিনি পেশায় একজন দর্জি। শুক্রবার সকাল আটটার দিকে তিনি খবর পান যে তাঁর ছেলে নিহত হয়েছে।

তিনি বলেন, মারজান যে কাজ করেছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে, সত্যি যদি সেই কাজের সঙ্গে সে জড়িত হয়ে থাকে, তাহলে তার বিচার করেছে সরকার।

"আমি ছেলের মুখের থেকে তো আর শুনতে পারলাম না যে সে এই কাজে জড়িত ছিল কীনা। এখন যেভাবেই হোক, আমার ছেলে নিহত হয়েছে। যদি সরকার আমার ছেলেকে বাড়িতে পৌঁছে দিতে পারে, এলাকাবাসীর আবেদন, তারা তাকে বহুদিন দেখেনি। এলাকাবাসী তাকে ভালোবাসতো। সেই হিসেবে তাকে দাফন করবো।"

তিনি আরও বলেন, "এখন আমি লাশ গ্রহণ করবে, আমার সেরকম সামর্থ্য নেই। আমি গরীব মানুষ। আমার সামর্থ্য নেই ওখানে গিয়ে লাশ নিয়ে আসার। আমি পারবো না।"

সম্পর্কিত বিষয়