বিমান চলাচলে বিঘ্ন ঘটাচ্ছে ঝাঁক ঝাঁক পাখি

পাখির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায়, এখন পরিস্থিতি এমন যে, সেটি বড় ধরণের সংকট তৈরি করেছে। ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption পাখির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায়, এখন পরিস্থিতি এমন যে, সেটি বড় ধরণের সংকট তৈরি করেছে।

লেবাননের রাজধানী বৈরুতের আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের কাছে একটি আবর্জনা ফেলার স্থানে বহুসংখ্যক পাখির আগমনের কারণে বিমান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, দেশটির পরিবহন মন্ত্রী।

ইউসুফ ফেনাইনোস জানিয়েছেন, পাখির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায়, এখন পরিস্থিতি এমন যে, সেটি বড় ধরণের সংকট তৈরি করেছে। প্রায় এক বছর আগে রাজধানীর আবর্জনা একটি স্থানে ফেলার জন্য ঐ কেন্দ্রটি তৈরি করা হয়েছিল।

মঙ্গলবার মিডিল ইষ্ট এয়ারলাইন্সের একটি বিমান রানওয়েতে অবতরণের আগে বিশাল এক ঝাঁক পাখির বাঁধার সম্মুখীন হয়।

২০১৬ সালের মার্চে কোস্টা ব্রাভা নামের আবর্জনা ফেলার স্থানটি নির্মাণ করা হয়, অস্থায়ী একটা সমাধান হিসেবে। কিন্তু ঐ বছরের আগস্টে পাইলটদের ইউনিয়ন সর্তক করে দিয়ে বলে এতে করে বিমানের ইঞ্জিনে পাখি ঢুকে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।

পরিবহন মন্ত্রী। ইউসুফ ফেনাইনোস বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে এখন প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করবেন।

তিনি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন "আজ আমরা একটা জরুরি অবস্থার মুখোমুখি। পাখির কারণে বিমান চলাচলে বিপদজনক কিছু হতে পারে সেটা আমরা সনাক্ত করতে পেরেছি। সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ, এখন পর্যন্ত কোন প্রকৃত দুর্ঘটনা ঘটেনি"।