বাংলাদেশের গণমাধ্যমে 'সেলফ সেন্সরশিপের' অভিযোগ

Image caption বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির কড়া সমালোচনা করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ

সরকারের চাপের মুখে বাংলাদেশের গণমাধ্যম 'সেলফ সেন্সরশিপের' পথ বেছে নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। একই সঙ্গে সেখানে সুশীল সমাজের বিরুদ্ধে দমন-নিপীড়ন চলছে বলেও অভিযোগ করেছে সংস্থাটি।

নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক এই সংস্থাটি শুক্রবার বাংলাদেশের ওপর যে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেছে তাতে বাংলাদেশ সরকারের মানবাধিকার রেকর্ডের ব্যাপক সমালোচনা করা হয়েছে।

হিউম্যান রাইটস ওয়চের একজন মুখপাত্র মিনাক্ষী গাঙ্গুলী বলেছেন, দমন-পীড়নের কারণে গত বছর যখন বিরোধী রাজনৈতিক দল শক্ত অবস্থান নিতে পারেনি, তখন গণমাধ্যম এবং সুশীল সমাজ থেকেই সরকারের সমালোচনা আসছিল। সেকারণে গণমাধ্যম এবং সুশীল সমাজের ওপরও দমনপীড়ন নেমে এসেছিল।

"সরকারের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ চাপের কারণে সাংবাদিকরা বা গণমাধ্যম সেলফ সেন্সরশিপের পথ বেছে নিচ্ছেন। বিজ্ঞাপনদাতাদের সমালোচক মিডিয়াকে বিজ্ঞাপন না দিতে বলা হচ্ছে। শীর্ষ দু'টি পত্রিকার সম্পাদকদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ থেকে শুরু করে ফৌজদারি অভিযোগের মামলাও করা হয়েছিল।এটা কিন্তু ভয়াবহ পরিস্থিতি।"

তবে বাংলাদেশ সরকারের তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এসব অভিযোগকে উদ্দেশ্যমূলক বলে বনর্না করেছেন।

তিনি বলেছেন, "আমরা গণমাধ্যমের জন্য কোনো নিবর্তনমূলক আইন করিনি। গত এক বছরে আমরা কোনো পত্রিকা, অনলাইন বা কোনো টেলিভিশনের নিবন্ধন বাতিল করিনি। মিডিয়া সরকারের সমালোচনায় মুখর।"

সম্পর্কিত বিষয়