ডেমোক্রেট অধিকারকর্মীর সমালোচনা করে তোপের মুখে ট্রাম্প

জানুয়ারির ২০ তারিখে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ছবির কপিরাইট এএফপি
Image caption জানুয়ারির ২০ তারিখে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

শুক্রবারে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে না যাবার ঘোষণা দেয়া ডেমোক্রেটিক কংগ্রেস সদস্য, রাজনীতিবিদ এবং বিনোদন জগতের তারকাদের সংখ্যা বাড়ছে।

এক টুইটে মি. ট্রাম্প নাগরিক অধিকার আন্দোলনকর্মী এবং ডেমোক্রেট কংগ্রেস সদস্য জন লুইসকে 'খালি বকবক করে' এবং 'অকাজের' বলে সমালোচনা করার পরই, এমন প্রতিবাদ জানাতে শুরু করেন ডেমোক্রেটিক কংগ্রেস সদস্যরা।

এই বিতর্কে বেজায় চটেছেন মি. লুইসের সমর্থকেরা।

মি. লুইস ষাটের দশকের যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অধিকার আন্দোলনের অন্যতম প্রধান একজন সংগঠক।

১৯৬৩ সালে ওয়াশিংটনে মার্টিন লুথার কিং এর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত বিখ্যাত পদযাত্রায় বক্তৃতা করা শেষ জীবিত নেতা এখন মি. লুইস।

ছবির কপিরাইট এএফপি
Image caption ১৯৬৩ সালে ওয়াশিংটনে মার্টিন লুথার কিং এর নেতৃত্বে বিখ্যাত পদযাত্রায় বক্তৃতা করা শেষ জীবিত নেতা এখন মি. লুইস

বিষয়টি পছন্দ হয়নি রিপাবলিকান কংগ্রেস সদস্যদেরও।

রিপাবলিকান ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক ধারাভাষ্যকার বিল ক্রিষ্টল মন্তব্য করেছেন, মি. ট্রাম্প একমাত্র ভ্লাদিমির পুতিনকেই সম্মান দেন।

এর আগে মি. লুইস জানিয়েছিলেন, মি. ট্রাম্পকে তিনি বৈধ প্রেসিডেন্ট বলে মনে করেন না। আর সেকারণে এ মাসের কুড়ি তারিখে অনুষ্ঠিতব্য শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন না তিনি।

টুইটের মাধ্যমে দেয়া জবাবে মি. ট্রাম্প বলেছেন, মি. লুইসের অন্যকে সমালোচনা করা বাদ দিয়ে নিজের নির্বাচনী এলাকার দিকে মন দেয়া উচিত।

ঐ এলাকাটিকে অপরাধপ্রবন এবং অত্যন্ত খারাপ অবস্থায় রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন মি. ট্রাম্প।