দলগুলোর কাছে ৫টি করে নাম চেয়েছে সার্চ কমিটি

ছবির কপিরাইট DESHAKALYAN CHOWDHURY
Image caption নির্বাচন কমিশন

বাংলাদেশে একটি নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনের লক্ষ্যে গঠিত 'সার্চ কমিটি' আজ তাদের প্রথম বৈঠকটি করেছেন, সিদ্ধান্ত হয়েছে রাষ্ট্রপতির কাছে নাম প্রস্তাবের আগে পর্যন্ত মিডিয়ায় কথা বলবেন না এর সদস্যরা।

কমিটির আজকে প্রধান যে দুটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা হলো: সোমবার ১২ জন বিশিষ্ট নাগরিকের সঙ্গে বৈঠক করা হবে, আর ৩১টি রাজনৈতিক দলকে মঙ্গলবারের মধ্যে ৫টি করে নাম প্রস্তাব করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এ ছাড়া রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের গঠিত 'সার্চ কমিটি'র সদস্যরা আজ মূলত পরস্পরের সাথে পরিচিত হয়েছেন ।

কিন্তু ছ'জন ভিন্ন ভিন্ন অঙ্গনের মানুষ আজ প্রথমবারের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে মিলিত হলেন, তারা আর কী আলাপ-সালাপ করলেন? সুপ্রিম কোর্টের জাজে'স লাউঞ্জের পরিবেশই বা সে সময় কেমন ছিল?

জানার জন্য সার্চ কমিটি'র সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা মুখ খুলতে অস্বীকৃতি জানান।

এমনকী টেলিভিশনে প্রচারিত ভিডিওতেও দেখা গেছে তারা সাংবাদিকদের এড়াতে চাইছেন।

বিবিসির তরফ থেকে যোগাযোগ করা হলে এদের একজন বলেছেন, আজ প্রথম বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ দেয়া পর্যন্ত তারা সাংবাদিকদের কাছে কোনরূপ বক্তব্য দেবেন না।

এ কদিন তারা কোন টিভি টকশোতেও যাবেন না।

ছবির কপিরাইট Focusbangla
Image caption নির্বাচন কমিশন

তবে কমিটির কার্যক্রমের সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা তারা বজায় রাখবেন, এজন্য গণমাধ্যমের কাছে প্রতিনিয়ত কমিটির কার্যক্রমের আপডেট দেবেন সাচিবিক দায়িত্ব পালনরত মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

তবে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানাচ্ছে, আজকের প্রথম বৈঠকের একটি বড় অংশই ছিল পরিচয় পর্ব।

এদের মধ্যে একাধিক সদস্যই রয়েছেন যারা পরষ্পরকে কখনো সামনাসামনি দেখেন নি। বৈঠকে তারা মূলত কর্মপদ্ধতি ঠিক করেছেন, কোন নাম নিয়ে আলোচনা করেননি।

মঙ্গলবারের আগে সার্চ কমিটি নাম নিয়ে বসবে না বলেই জানা যাচ্ছে।

এর আগে ৩১টি রাজনৈতিক দলের কাছ থেকে ৫ জন করে নামের প্রস্তাব তারা পেয়ে যাবেন আর বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে বৈঠকেও গুরুত্বপূর্ণ পথনির্দেশ পাওয়া যাবে বলে আশা করছেন সার্চ কমিটির সদস্যরা।

রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে নামের প্রস্তাব আশা করছে সার্চ কমিটি তবে "কেউ না দিলেও অসুবিধা নেই" বলে মনে করে সার্চ কমিটি, জানাচ্ছে নির্ভরযোগ্য সূত্রটি।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিরোধী দল বিএনপি, যারা এরই মধ্যে সার্চ কমিটির সদস্যদের নিরপেক্ষতা নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছে, সেই দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিবিসিকে বলেন, তারা এখনো চিঠি পাননি। তবে খবরে শুনেছেন।

এখন 'সার্চ কমিটি'র আহ্বানে সাড়া দিয়ে নাম প্রস্তাব করবেন কি না, সেটা দলীয় ফোরামে আলোচনার মাধ্যমেই সিদ্ধান্ত হবে বলে জানান মি. আলমগীর।

আরো পড়ুন: সাতটি মুসলিমপ্রধান দেশের লোকদের আমেরিকায় ঢোকা নিষিদ্ধ করলেন ট্রাম্প

নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবার আগেই যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে থাকা কর্মীদের ফিরতে বললো গুগল

হিন্দু রানী-মুসলিম রাজার প্রেম নিয়ে বলিউডের ছবির শুটিং এ হামলা, পরিচালককে চড়

১২ জন বিশিষ্ট নাগরিক

সোমবার যে ১২ জন বিশিষ্ট নাগরিকের সঙ্গে বৈঠক করবে সার্চ কমিটি তাদের পরিচয় এরই মধ্যে প্রকাশ করেছেন মন্ত্রী পরিষদ সচিব শফিউল আলম।

এরা হচ্ছেন: হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি আবদুর রশিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এ কে আজাদ চৌধুরী ও এস এম এ ফায়েজ, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা, সাবেক নির্বাচন কমিশনার সাখাওয়াত হোসেন ও ছহুল হোসাইন, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক, পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক নুরুল হুদা, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ এবং সুশাসনের জন্য নাগরিকের বদিউল আলম মজুমদার।

আগামী সোমবার সুপ্রিম কোর্টের জাজে'স লাউঞ্জেই বৈঠক হবে এদের সাথে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রটি আজকের বৈঠকের বরাত দিয়ে বলছে, এই ১২ জন বিশিষ্ট নাগরিককে রাজনৈতিক কারণে ডাকেনি সার্চ কমিটি।

"এদেরকে ডাকা হয়েছে কারণ এরা দেশকে নিয়ে ভাবেন।"