নির্বাচন কমিশনের জন্যে ২০ জনের তালিকা সার্চ কমিটির

নির্বাচন কমিশন ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption নির্বাচন কমিশন

বাংলাদেশে নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রস্তাবিত ১২৫ জনের মধ্যে ২০ জনের নামের একটি প্রাথমিক তালিকা তৈরি করেছে সার্চ বা অনুসন্ধান কমিটি।

আজ মঙ্গলবার এই কমিটির বৈঠকের পর সন্ধ্যায় মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের সচিব সফিউল আলম এই তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে, আজই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিরোধীদল বিএনপিসহ ২৫টি রাজনৈতিক দল নিজ নিজ দলের পক্ষে নাম জমা দিয়েছে।

মন্ত্রী পরিষদ সচিব বলেছেন, এই নামের তালিকা ধরে ধরে অনুসন্ধান কমিটি সেগুলো যাচাই বাছাই করেছে।

আওয়ামী লীগ বলেছে,সকলের গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন হবে বলে তারা বিশ্বাস করে।

আর বিএনপি বলেছে, শেষ পর্যন্ত তাদের দেওয়া তালিকায় যাদের নাম দেওয়া হয়েছে নির্বাচন কমিশনে তারা না থাকলেও নিরপেক্ষ ও সাহসী ব্যক্তিদের দিয়ে কমিশন গঠন করা হলে তারা সেটা মেনে নেবেন।

নিবন্ধিত প্রতিটি রাজনৈতিক দলকে পাঁচ জনের করে নাম প্রস্তাবের জন্য অনুসন্ধান কমিটি মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল।

আরো পড়ুন: বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী ফিলিস্তিন: কতোটা সম্ভব?

নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিরোধী দল বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলগুলি তাদের পছন্দের ব্যক্তিদের নামের তালিকা দেয়।

এসব নাম নিয়ে বিকেলেই বৈঠক করে অনুসন্ধান কমিটি।

এই কমিটির পক্ষে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের সচিব সফিউল আলম জানিয়েছেন, অনুসন্ধান কমিটির সদস্যরা দলগুলোর প্রস্তাবিত নামের তালিকার প্রত্যেকের ক্যারিয়ার এবং অভিজ্ঞতা পর্যালোচনা করেছে।

"সততা, যোগ্যতা এবং নিরপেক্ষতার বিষয়কে বিবেচনায় নিয়ে কমিটি ১২৫ জনের মধ্য থেকে ২০ জনের নামের প্রাথমিক তালিকা করেছে।"

সফিউল আলম আরও জানিয়েছেন, একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং চারজন কমিশনারের জন্য দশ জনের নাম প্রস্তাব করতে হবে অনুসন্ধান কমিটিকে।

এখন ২০ জনের তালিকার পাশাপাশি কমিটির সদস্যরাও নাম প্রস্তাব করতে পারবেন।

সব মিলিয়ে কমিটি আরও বৈঠক করে দশ জনের নাম চূড়ান্ত করবে বলে তিনি উল্লেখ করেছেন।

আরো পড়ুন: এবার বুরকা ও নিকাব নিষিদ্ধ হচ্ছে অস্ট্রিয়ায়

এই অনুসন্ধান কমিটির নিরপেক্ষতা নিয়েই প্রশ্ন তুলে আসছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।

এরপরও তারা কমিটির কাছে তাদের পছন্দের নামের তালিকা দিয়েছে।

দলটির নেতাদের অনেকে বলেছেন, সরকার একতরফাভাবে নির্বাচন কমিশন গঠন করে ফেললে, সেটা বিএনপির জন্য আরও নেতিবাচক হবে। সেখানে গ্রহণযোগ্য কমিশন গঠনের জন্য একটা চাপ রাখার কৌশল নিয়ে দলটি এগুচ্ছে।

ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption নির্বাচন কমিশন সদস্যদের বাছাই করতে রাষ্ট্রপতির গঠিত কমিটির সদস্যরা । উপরের সাড়িতে বাম থেকে বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, মহা হিসাব নিরীক্ষক মাসুদ আহমেদ, পিএসসি চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক, অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, অধ্যাপক শিরিন আখতার এবং বিচারপতি ওবায়দুল হাসান

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, "আমাদের দেয়া নামগুলোই একমাত্র নাম, তাতো না। আরও মানুষ আছেন, যারা সৎ এবং নিরপেক্ষ। আমরা যাদের মোটামুটি মনে করেছি, তাদের নাম দিয়েছি। কিন্তু আরও অনেক মানুষ আছেন। সুতরাং যদি বোঝা যায় যে সৎ,যোগ্য এবং নিরপেক্ষ সাহসী ব্যক্তিদের দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে তাহলে অবশ্যই আমরা মেনে নেবো।"

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ দাবি করেছেন, রাষ্ট্রপতি তার এখতিয়ার অনুযায়ী যে প্রক্রিয়ায় কমিশন গঠন করছেন, তাতে তাদের বিশ্বাস আছে এবং তারা এই প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করবেন না।

আরো পড়ুন: স্তন্যদাত্রী কি না, বিমানবন্দরে পরীক্ষা দিলেন মা

তিনি আশা করেন,রাষ্ট্রপতি যে কমিশন গঠন করবেন, তা সব দল মেনে নেবে।

আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি বর্তমান কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। এর আগেই অনুসন্ধান কমিটি রাষ্ট্রপতির কাছে নাম প্রস্তাব করতে পারে।

সম্পর্কিত বিষয়