‘যুক্তরাষ্ট্রের কিছু হলে আদালত দায়ী থাকবে’ ডোনাল্ড ট্রাম্প

ডোনাল্ড ট্রাম্প ছবির কপিরাইট AFP
Image caption মার্কিন বিচার ব্যবস্থার ওপর ক্ষোভ ঝেড়ে বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার আরোপ করা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আদালত স্থগিত করে দেবার পর বিচারক ও বিচার ব্যবস্থার কড়া সমালোচনা করেছেন।

তিনি বলেছেন 'যুক্তরাষ্ট্রে যদি কোনও কিছু ঘটে' তাহলে বিচারকরাই দায়ী থাকবে এবং আমেরিকানদের উচিত হবে এ ব্যবস্থাকে দোষারোপ করা।

মি: ট্রাম্প আরও বলেছেন যে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশকারী ব্যক্তিদের 'অত্যন্ত সতর্কভাবে' তল্লাশির জন্য সীমান্তের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারির পর থেকে মি: ট্রাম্প একের পর এক আইনি বাধার মুখে পড়ছেন।

দেশটির একটি ফেডারেল আদালত সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণের ওপর ট্রাম্পের জারি করা নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেন। তার বিরুদ্ধে আবারও মি ট্রাম্পের পক্ষ থেকে আপিল করা হলে তা-ও খারিজ করে দেয় দেশটির একটি আদালত।

বিচার বিভাগের সাথে এমন মুখোমুখি অবস্থায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিচারক ও বিচারব্যবস্থার প্রতি নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন টুইটারে।

কয়েক দফা টুইটে মি: ট্রাম্প বলেছেন "যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটিকে বলেছি আমাদের দেশে যেসব লোক আসছে তাদের খুব সতর্কতার সঙ্গে পরীক্ষা করতে। এই কাজটিকে আদালতগুলো খুব কঠিন করে দিচ্ছে!"

আরও পড়তে পারেন:

সীমান্তে 'সতর্ক' তল্লাশির আহ্বান জানালেন ট্রাম্প

ট্রাম্পের আপিল খারিজ করে দিলো আদালত

‘২৪ ঘন্টা খাবার ছাড়া কখনও ছিলেন?’ ট্রাম্পকে প্রশ্ন

আমেরিকা যেতে পারছেন ৭ মুসলিম দেশের যাত্রীরা

ছবির কপিরাইট EPA
Image caption আটলান্টা এয়ারপোর্টে সিবিপি অফিসার

"বিশ্বাস করতে পারছি না একজন বিচারক আমাদের দেশকে এভাবে বিপদের ঝুঁকিতে ঠেলে দিতে পারেন। যদি কিছু ঘটে যায় তাহলে তাকে এবং বিচার ব্যবস্থাকে দোষারোপ করতে হবে"।

যদি যুক্তরাষ্ট্রের কিছু হয় তাহলে, বিচারকেরা এবং দেশের বিচার ব্যবস্থাই এর জন্য দায়ী থাকবে।

রোববার আদালত আপিলের ওপরে স্থগিতাদেশ দেয়ার ফলে, ইরাক, সিরিয়া, ইরান, সোমালিয়া, সুদান, লিবিয়া ও ইয়েমেনের বৈধ ভিসা-ধারীরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারছেন।

তবে আদালত আপিল খারিজ করে দিলেও হোয়াইট হাউজ এবং আইনজীবীদের আরও যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য সোমবার পর্যন্ত সময় দিয়েছে।

আরও পড়ুন:

মৃত্যুর অনুমতি চাওয়া পরিবারটির পাশে ভারত- চীন

যুক্তরাষ্ট্রের এক নারীর কানে আটকা পড়েছিল অজগর

যুক্তরাজ্যে সবার জন্য খুলে দেয়া হয় দেড়'শ মসজিদ

মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীদের গুলিতে বাংলাদেশী নিহত

সম্পর্কিত বিষয়