সুইজারল্যান্ডে নাগরিকত্ব পাওয়ার নীতি সহজ হচ্ছে

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption দেশটিতে কাছাকাছি সময় মুসলিম অভিবাসী বিরোধী মনোভাব তৈরি হয়েছে।

ইওরোপের দেশ সুইজারল্যান্ডের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নিয়ে বিশ্বজুড়ে বহু মানুষের আগ্রহ রয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল দেশগুলোর একটি এই সুইজারল্যান্ডে নাগরিকত্ব পাওয়ার নিতি এতদিন খুবই কঠিন ছিলো।

দীর্ঘ-স্থায়ীভাবে যেসব বিদেশিরা সেখানে বসবাস করেন, নাগরিকত্ব পাওয়ার আবেদন করতে তাদেরকে ১২ বছর অপেক্ষা করতে হতো।

এমনকি সেখানে জন্ম নিলেও অন্যদেশী বংশোদ্ভূতরা নাগরিক হতে পারতেন না।

সেই নিয়ম পাল্টে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। সুইজারল্যান্ডে নাগরিকত্বের কঠোর নীতি সহজ করার একটি প্রস্তাবে সমর্থন দিয়েছে দেশটির ভোটাররা।

ভোটের প্রাথমিক ফলাফলে দেখা গেছে ৫৯ ভাগ ভোটার একে সমর্থন দিয়েছে।

যার ফলে সুইজারল্যান্ডের জন্মগ্রহণকারী তৃতীয় প্রজন্মের অভিবাসী, যাদের বাবা-মা বা দাদা-দাদী সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাস করছে, তাদের নাগরিকত্ব পাওয়া সহজ হবে।

সরকারি হিসেবে দেখা যায়, মোট জনসংখ্যার ২৫ শতাংশই সুইজারল্যান্ডের নাগরিক নন।

প্রস্তাবিত নতুন আইনের খসড়ায় বলা হয়েছে, তৃতীয় প্রজন্মের অভিবাসীদেরকে আর এধরনের আমলাতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যেতে হবে না।

তবে বিরোধিতারা বলছেন, এর ফলে জনগণের বিশাল একটা অংশ খুব সহজেই নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন।

বিশেষ কর দেশটিতে কাছাকাছি সময় মুসলিম অভিবাসী বিরোধী মনোভাব তৈরি হয়েছে।

এর আগে গত ৩০ বছরে এই আইনটি শিথিল করার ব্যাপারে তিনবার ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কিন্তু প্রত্যেকবারই জনগণ সেই উদ্যোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।