তিনশো তিমির মৃতদেহ নিয়ে বিপাকে নিউজিল্যান্ড

সৈকতে পড়ে থাকা মৃত তিমি। ছবির কপিরাইট AP
Image caption সৈকতে এভাবেই মরে পড়ে রয়েছে মৃত তিমি।

নিউজিল্যান্ডের সমুদ্র উপকুলে শত শত তিমির মৃত্যুর পর মরদেহগুলোতে গ্যাস জমতে শুরু করেছে।

এর ফলে ধীরে ধীরে বেলুনের মতো ফুলে ফেটে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

প্রতিটির ওজন এক থেকে তিন হাজার কেজি।

এখন সেগুলো কবর দেওয়ার চেষ্টা করছে কর্তৃপক্ষ।

সোমবার থেকে প্রাণী সংরক্ষকরা তিমিগুলোর পেট ফুটো করে জমা হওয়া গ্যাস বের করে দেয়ার চেষ্টা করছে।

যদিও সৈকতটিকে জনগণের প্রবেশ বন্ধ রাখা হয়েছে।

তবে মরদেহগুলো ফেটে গেলে সেটি কারোর জন্যই সুখকর দৃশ্য হবে না।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption নতুন করে তিমি যাতে সৈকতে আসতে না পারে সেজন্য কাজ করছেন এলাকার স্বেচ্ছাসেবকেরা।

মরদেহগুলো খনন যন্ত্র দিয়ে তুলে নিয়ে বালুচরে কবর দেয়ার চেষ্টা চলছে।

নিউজিল্যান্ডের সাউথ আইল্যান্ড এলাকায় সমুদ্র উপকুলে গত সপ্তাহে বৃহস্পতিবার চারশো মতো তিমি এসে আটকে পড়েছিলো।

সৈকতে সেগুলো মারা যেতে শুরু করলে সেগুলোকে উদ্ধার করে পানিতে ফিরিয়ে দেয়ার একটি ব্যাপক চেষ্টা চালিয়েছে উদ্ধারকারীরা।

কিন্তু তিনশো মতো তিমি সেখানেই মারা পরে।

শনিবার পর্যন্ত আরো দুইশত নতুন তিমি সৈকতে এসেছে। সেগুলোর বেশিভাগকে পানিতে ফিরিয়ে দেয়া সম্ভব হয়েছে।

তবে এতগুলো তিমি কেন ঐ সৈকতে এসেছে সেটি এখনো বের করতে পারে নি বিজ্ঞানীরা।

তবে দেখে মনে হয়েছে তিমিগুলো যেন মৃত্যুর জন্যেই সেখানে এসেছিলো।