ওয়ার্ল্ড প্রেস ফটো প্রতিযোগিতা ২০১৭: রুশ রাষ্ট্রদূতের হত্যার ছবি সর্বোচ্চ পুরস্কার বিজয়ী

আন্তর্জাতিক সংবাদ চিত্র প্রতিযোগিতায় বিজয়ী নির্বাচন করা হয়েছে ৮০ হাজারের বেশি ছবির মধ্যে থেকে। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী কিছু ছবির গ্যালারি দেখুন নিচে।

সতর্কবাণী: এই গ্যালারিতে কিছু ছবি আছে যা কারো কারো কাছে অস্বস্তিকর মনে হতে পারে।

ওয়ার্ল্ড প্রেস ফটো ২০১৭-য় প্রথম পুরস্কার পেয়েছে তুরস্কে রুশ রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই কারলফকে গুলি করে হত্যা করার ছবিটি।

আঙ্কারায় একটি আর্ট গ্যালারিতে ২০১৬ সালের ১৯শে ডিসেম্বর ছবিটি তোলেন অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের আলোকচিত্রী বুরহান অজবিলিচি। এতে দেখা যাচ্ছে তুরস্কের একজন পুলিশ মেভলুৎ মার্ট অলতিনাস, যিনি ডিউটিতে ছিলেন না, রাষ্ট্রদূতকে গুলি করে হত্যা করার পর চিৎকার করছেন।

১৯শে ডিসেম্বর ২০১৬, তুরস্কের আঙ্কারায় রুশ রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই কারলফকে গুলি করে মারার পর আততায়ী মেভলুৎ মার্ট অলতিনাস চিৎকার করে কিছু বলছে। ছবির কপিরাইট Burhan Ozbilici/AP
Image caption ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৬, তুরস্কের আঙ্কারায় রুশ রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই কারলফকে গুলি করে মারার পর আততায়ী মেভলুৎ মার্ট অলতিনাস চিৎকার করে কিছু বলছে।

বিচারকদের সভাপতি, স্টুয়ার্ট ফ্র্যাঙ্কলিন, অজবিলিচির ছবিটির প্রশংসা করে বলেন, "আমি মনে করি এটি একটি দারুণভাবে নাড়া দেওয়া সংবাদচিত্র। ঘটনার তাৎক্ষণিক মুহূর্তকে তুলে ধরা অসাধারণ ছবি। এটা শুধু যে কোনো একটা আলোকচিত্র নয়, এটা ঘটনাস্থল থেকে সংবাদের ছবি। বুরহান খুবই দুঃসাহসী। একটা ভয়ানক ঘটনা যখন ঘটছে তখন মাথা অসাধারণ ঠাণ্ডা রেখে তার ছবি তুলে আনা দারুণ কৃতিত্বের।"

অজিবিলিচি 'স্পট নিউজ' ক্যাটেগোরিতেও জয়ী হয়েছেন 'তুরস্কে আততায়ীর এক হত্যাকাণ্ড' এই শিরোনামে ওই ঘটনার ছবিগুলোর জন্য।

ওয়ার্ল্ড প্রেস ফটো ১৯৫৫ সাল থেকে প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে। এবছর জুরিরা আটটি বিভিন্ন ক্যাটেগোরিতে ২৫টি দেশের ৪৫জন আলোকচিত্রীকে পুরস্কৃত করেছেন।

'জেনারেল নিউজ স্টোরিজ' ক্যাটেগোরিতে প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন নিউ ইয়র্ক টাইমসের ড্যানিয়েল বেরেহুলাক। 'ওরা আমাদের পশুর মত মারছে' এই শিরোনামের ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে জেলখানার কয়েদীদের- ফিলিপিনের ম্যানিলায় এক পুলিশ স্টেশনের ভেতর সন্দেহভাজন মাদক অপরাধীদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেওয়া হয়েছে, যেদিকে তাকিয়ে এই কয়েদীরা।

ম্যানিলায় পুলিশ স্টেশনের ভেতর সন্দেহভাজন মাদক অপরাধীদের জিজ্ঞাসাবাদের সময় জেলের ভেতরে কিছু কয়েদী ছবির কপিরাইট Daniel Berehulak for The New York Times

পরের ছবিটির জন্য 'জেনারেল নিউজ (সিঙ্গলস)' ক্যাটেগোরিতে বিজয়ী হয়েছেন লঁ মঁন্দ পত্রিকার ফোটো সাংবাদিক লঁরা ভ্যান ডার স্টকট।

ছবিটি তিনি তোলেন ২০১৬র দোসরা নভেম্বর যখন ইরাকী বিশেষ বাহিনীর মসুলের পূর্বাঞ্চলে গগজালি এলাকায় বাড়ি বাড়ি তল্লাশি অভিযান চালানোর সময়।

দোসরা নভেম্বর ২০১৬ ইরাকী বিশেষ বাহিনী মসুলের পূর্বে গগজালিতে আইসিস সদস্য ও সামরিক সরঞ্জামের সন্ধানে বাড়ি বাড়ি তল্লাশি চালায়। ছবির কপিরাইট Laurent Van der Stockt/Getty Reportage

'জেনারেল নিউজ স্টোরিস' ক্যাটেগোরিতে নিউ ইয়র্ক টাইমসের সের্গেই পোনোমারেফের তোলা পরের ছবিটি দ্বিতীয় স্থান পেয়েছে। ১২ই নভেম্বর তোলা ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি পরিবার মসুলের যুদ্ধ থেকে পালাচ্ছে। পেছনে কাইয়ারার তেলক্ষেত্রে আগুন জ্বলছে।

ইরাকের দ্বিতীয় বড় শহর মুসল ছেড়ে পালাচ্ছে একটি পরিবার- পেছনে ইরাকের কাইয়ারার তেলক্ষেত্র জ্বলছে। ছবির কপিরাইট Sergey Ponomarev for The New York Times

'লং টার্ম প্রজেক্ট' ক্যাটেগোরিত 'ইউক্রেনের কালো দিন' শিরোনামে ভ্যালেরি মেলনিকফের নিচের ছবিটি প্রথম পুরস্কার পেয়েছে।

রুশ আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রসিয়া সেগোদনিয়ায় প্রকাশিত সিরিজের এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে লুহানস্কায়া গ্রামের উপর বিমান হামলায় বিধ্বস্ত একটি বাড়ি থেকে পালাচ্ছেন একটি দম্পতি।

ইউক্রেনের লুহানস্কায়া গ্রামের ওপর বিমান হামলায় বিধ্বস্ত বাড়ি থেকে পালাচ্ছেন এক দম্পতি। ছবির কপিরাইট Valery Melnikov/Rossiya Segodnya

একই ক্যাটেগোরিতে দ্বিতীয় পুরস্কার পাওয়া পরের ছবির আলোকচিত্রী প্যানোস পিকচার্সের হোসেন ফাতেমি।

গত কয়েক বছর ধরে ইরানের জটিল সমাজ জীবনের বিভিন্ন দিকের ছবি তুলেছেন ফাতেমি। তার ছবিতে উঠে এসেছে ইরানী সমাজের দৈনন্দিন জীবনের অনেক অজানা অচেনা দিক। এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে নৃত্যরত দুজন তরুণীকে।

দুজন তরুণী একটি পার্টিতে একসঙ্গে নাচছেন। ছবির কপিরাইট Hossein Fatemi/Panos Pictures

কনটেম্পোরারি ঘটনা বিষয়ে ছবির ক্যাটেগোরিতে প্রথম হয়েছেন অ্যাম্বার ব্র্যাকেন। আমেরিকার উত্তর ডাকোটায় নতুন তেলের পাইপলাইন বসানোর বিরুদ্ধে ২০শে নভেম্বর ২০১৬য় বিক্ষোভকারীদের প্রতিবাদের এই ছবির জন্য।

একটি মহাসড়কে পুলিশি প্রতিবন্ধকতার সময় গোলমরিচের স্প্রেতে আহত এক ব্যক্তিকে মিল্ক অফ ম্যাগনেসিয়া দিয়ে চিকিৎসা করা হচ্ছে।

উত্তর ডাকোটার মহাসড়কে প্রতিবাদের সময় গোলমরিচের স্প্রেতে আহত এক ব্যক্তিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ছবির কপিরাইট Amber Bracken

পরের ছবিতে ২০১৬য় ব্রাজিলের রিও ডি জেনিয়েরোর অলিম্পিকে ১০০ মিটার দৌড় প্রতিযোগিতার সময় জামাইকার উসেইন বোল্ট পেছন ফিরে প্রতিযোগীদের অবস্থান দেখে নিয়ে হাসছেন। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী বোল্টের এই দৌড়ের ছবি তুলেছেন কাই অলিভার ফাফেনবাক্। স্পোটর্স সিঙ্গলস্ ক্যাটেগোরিতে ছবিটি তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছে।

রিও ডি জেনিয়েরোর ২০১৬ অলিম্পিকে ১০০ মিটার দৌড়ের ট্র্যাকে জামাইকার উসেইন বোল্ট। ছবির কপিরাইট Kai Oliver Pfaffenbach/Reuters

পরের ছবিটির জন্য নেচার সিঙ্গলস ক্যাটেগোরিতে পুরস্কৃত হয়েছেন ফ্রান্সিস পেরেজ।

ছবিটি তিনি তুলেছেন ২০১৬-র ৮ই জুন। স্পেনের ক্যানারি আইল্যান্ডে টেনেরিফের উপকূলে মাছ ধরার জালে আটকে গেছে একটি সামুদ্রিক কচ্ছপ।

ক্যানারি আইল্যান্ডে টেনেরিফের উপকূলে মাছ ধরার জালে আটকে গেছে একটি সামুদ্রিক কচ্ছপ। ছবির কপিরাইট Francis Perez

নেচার স্টোরিজ ক্যাটেগোরিতে 'গণ্ডার বাঁচাও লড়াই' শিরোনামের পরের ছবির জন্য প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন ন্যাশানাল জিওগ্রাফিক সাময়িকীর আলোকচিত্রী ব্রেন্ট স্টার্টন।

এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে দুজন গণ্ডার চোরাশিকারীকে, একজনের বয়স ১৯, অন্যজনের বয়স ২৮। ক্রুগার ন্যাশানাল পার্কের সীমান্তবর্তী এলাকায় মোজাম্বিকের চোরাশিকারী দমন টিমের হাতে ধরা পড়ে এই দুই চোরাশিকারী। স্থানীয় কারাগারে চালানের অপেক্ষায় বসে আছে দুই অপরাধী।

ক্রুগার ন্যাশানাল পার্কের সীমান্তবর্তী এলাকায় মোজাম্বিকের চোরাশিকারী দমন টিমের হাতে ধরা পড়েছে এই দুই গণ্ডার চোরাশিকারী। ছবির কপিরাইট Brent Stirton/National Geographic

নেচার স্টোরিজ ক্যাটেগোরিতেই দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছেন অ্যামি ভিতালি। তিনিও পুরস্কার পেয়েছেন ন্যাশানাল জিওগ্রাফিক সাময়িকীতে তার পাণ্ডা ভালুকের ছবির জন্য।

১৬ বছর বয়সী বিশাল পাণ্ডা চি চি-র এই ছবিটি তোলা চীনের উলুং অভয়ারণ্যের বিশাল বন এলাকায়।

১৬ বছর বয়সী বিশাল পাণ্ডা চি চি-র এই ছবিটি তোলা চীনের উলুং অভয়ারণ্যের বিশাল বন এলাকায়। ছবির কপিরাইট Ami Vitale/National Geographic

দোসরা ডিসেম্বর ২০১৬ কিউবার লাস তুনাস প্রদেশে ফিদেল কাস্ত্রোর দেহভস্ম বহনকারী যান চলে যাবার পর ছাত্রদের ঘরে ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে একটি ট্রাক। ডেইলি লাইফ স্টোরিজ ক্যাটেগোরিতে নিউ ইয়র্ক টাইমসের টমাস মুনিতার তোলা নিচের ছবিটি প্রথম পুরস্কার পেয়েছে।

কিউবার লাস তুনাস প্রদেশে ফিদেল কাস্ত্রোর দেহভস্ম বহনকারী যান চলে যাবার পর ছাত্রদের ঘরে ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে একটি ট্রাক। ছবির কপিরাইট Tomas Munita/The New York Time

দুই বোন অলগা আর অ্যাডেলিনা লিম হি কোরীয় বংশোদ্ভুত দুজন কিউবান। কিউবায় কোরীয় বংশোদ্ভুত মানুষের সংখ্যা হাতে গোনা। বংশ পরম্পরায় তারা সবাই কোরীয়। কিউবানদের সঙ্গে তাদের বংশের কারও বিয়ে হয়নি। এই দুই বোনের পিতামহের নাম ছিল চিওন তায়েক। কিউবায় প্রথম যেসব কোরীয় এসে বসতি গেড়েছিলেন তাদের মধ্যে সুপরিচিত ছিলেন চিওন তায়েক।

পিপলস স্টোরিজ ক্যাটেগোরিতে প্রথম পুরস্কার পাওয়া পরের ছবিটি তুলেছেন মাইকেল ভিন্স কিম।

দুই বোন অলগা আর অ্যাডেলিনা লিম হি কোরীয় বংশোদ্ভুত দুজন কিউবান। বংশ পরম্পরায় তাদের কোনো কিউবান রক্ত নেই। ছবির কপিরাইট Michael Vince Kim

পুরস্কার পাওয়া সব ছবি দেখতে পারেন এই লিংকে ক্লিক করে www.worldpressphoto.org.

সম্পর্কিত বিষয়