আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ায় স্বামীর কারাদণ্ড

  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
ছবির কপিরাইট Facebook/Anwar Ali
Image caption ওয়াহিদা সিফাত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার সাবেক ছাত্রী। (ফাইল চিত্র)

বাংলাদেশে একজন গৃহবধূ আত্মহত্যা করবার দু বছর পর আদালত তার স্বামীকে প্ররোচনা দেবার অভিযোগে দশ বছর কারাদণ্ড দিল।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার প্রাক্তন শিক্ষার্থী ওয়াহিদা সিফাত ২০১৫ সালের মার্চ মাসে মারা যান।

তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে দাবী করা হয়, ময়না তদন্তেও সেরকম প্রতিবেদন আসে, কিন্তু পরে আদালতের নির্দেশে করা দ্বিতীয় দফা একটি ময়না তদন্তে তার শরীরে আঘাত ও নির্যাতনের চিহ্ন মেলে এবং আঘাতজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

এ মামলার অভিযুক্তরা হচ্ছেন মিসেস সিফাতের স্বামী মোহাম্মদ আসিফ প্রিসলি, শ্বশুর মোহাম্মদ হোসেন রমজান, শ্বাশুড়ি নাজমুন নাহার নাজলী ও প্রথম ময়না তদন্তকারী চিকিৎসক জোবাইদুর রহমান।

আজকের রায়ে মি. প্রিসলিকে দশ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে এবং বাকীদের বেকসুর খালাস দিয়েছে।

মামলাটি হত্যার অভিযোগে পরিচালিত হলেও শেষ পর্যন্ত হত্যার অভিযোগ আদালতে প্রমাণ হয়নি। দণ্ড হয়েছে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেবার অভিযোগে।

ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে এই রায় দেয়া হয়।

চাঞ্চল্য সৃষ্টিকারী মামলা হিসেবে রাজশাহীর আদালত থেকে মামলাটিকে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়েছিল।

সম্পর্কিত বিষয়