যুক্তরাষ্ট্রে যৌন লাঞ্ছনার অভিযোগে ভারতীয় অ্যাথলিট গ্রেফতার

Image caption তানভীর হুসেইনকে গ্রেফতার হয়েছে এক শিশুকে যৌন লাঞ্ছনার অভিযোগে

যুক্তরাষ্ট্রের এক শহরে যে দুই ভারতীয় অ্যাথলিটকে বিপুল সংবর্ধনা দিয়ে বরণ করা হয়েছিল, তাদের একজনকে এখন পুলিশ গ্রেফতার করেছে এক শিশুকে যৌন লাঞ্ছনার অভিযোগে।

ভারত শাসিত কাশ্মীরের দুই অ্যাথলিট তানভীর হুসেইন এবং আবিদ খান যখন ওয়ার্ল্ড স্নোশু চ্যাম্পিয়ন্সশীপে অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্রে যেতে চেয়েছিলেন, তখন তাদের ভিসার আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়। তখন নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের ছোট্ট শহর সারানাক লেক তাদের পক্ষে দাঁড়ায়। শহরের মেয়র থেকে শুরু করে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা পর্যন্ত চিঠি লিখে এবং নানা প্রচারণা চালিয়ে তাদের ভিসা দেয়ার পক্ষে জনমত গড়ে তোলেন। এমনকি দুজন সেনেটর পর্যন্ত এই দুই ভারতীয় অ্যাথলিটকে ভিসা দেয়া পক্ষে দাঁড়ান।

শেষ পর্যন্ত তানভীর হুসেইন এবং আবিদ খান যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার ভিসা পান। তাঁরা যখন সারানাক লেক শহরে পৌঁছান সেখানে তাদের বিপুল সম্বর্ধনা দেয়া হয়।

কিন্তু দুই অ্যাথলিটের একজন তানভীর হুসেইনকে এখন গ্রেফতার করে জেলে পাঠানো হয়েছে এক শিশুর ওপর যৌন লাঞ্ছনার অভিযোগে।

সারানাক লেক শহরের পুলিশ বিভাগ জানিয়েছেন, মিস্টার হুসেইনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে যে তিনি ১২ বছরের এক মেয়েকে চুমু খেয়েছিলেন।

পুলিশকে উদ্ধৃত করে মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি জানাচ্ছে, তানভীর হুসেইন জোর করে এই মেয়েকে চুমু খেয়েছেন এমন কোন অভিযোগ নেই। যেহেতু মেয়েটির বয়স কম সেজন্যেই এই অভিযোগ আনা হয়েছে।

তানভীর হুসেইনের আইনজীবী জানিয়েছেন, মেয়েটি এবং তাঁর বাবা অভিযোগ করার পর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

তানভীর হুসেইন এবং অপর ভারতীয় অ্যাথলিটকে যখন যুক্তরাষ্ট্র ভিসা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল, তখন সারানাক লেক মিডল স্কুলের ছাত্ররা সেনেটর চাক শুমার এবং সেনেটর কারস্টেন গিলিব্রান্ডের কাছে চিঠি লিখেছিল তাঁকে ভিসা দিতে সাহায্য করার জন্য।

তাদের ভিসা দেয়ার জন্য জোর প্রচারণার পর শেষ পর্যন্ত দিল্লির মার্কিন দূতাবাস দুজনকে ভিসা দেয়।