ভবন ভাঙতে ছয় মাস সময় পেল বিজিএমইএ

ঢাকার হাতিরঝিল প্রকল্প এলাকায় একটি জলাশয়ের মধ্যে যথাযথ অনুমতি ছাড়াই ১৬ তলা এই ভবনটি নির্মাণ করেছিল বিজিএমইএ ছবির কপিরাইট BBC BANGLA
Image caption ঢাকার হাতিরঝিল প্রকল্প এলাকায় একটি জলাশয়ের মধ্যে যথাযথ অনুমতি ছাড়াই ১৬ তলা এই ভবনটি নির্মাণ করেছিল বিজিএমইএ

ঢাকার হাতিরঝিল প্রকল্প এলাকায় অবস্থিত পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ ভবন ভাঙতে ছয় মাসের সময় দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

আজ রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে তিন সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বেঞ্চের অপর সদস্যরা হলেন বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

ভবন ভাঙতে তিন বছর সময় চেয়ে আবেদন করেছিল বিজিএমইএ।

বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগে বিজিএমইএর আবেদনটি উপস্থাপনের পর এ বিষয়ে শুনানির জন্য ১২ই মার্চ তারিখ নির্ধারণ করেন আদালত।

আজ আদালত বিজিএমইকে ছয় মাস সময় দিয়ে তাদের কার্যালয় সরানোর আদেশ দেন।

ঢাকার হাতিরঝিল প্রকল্প এলাকায় একটি জলাশয়ের মধ্যে যথাযথ অনুমতি ছাড়াই ১৬ তলা এই ভবনটি নির্মাণ করেছিল বিজিএমইএ। ভবনটির মোট আয়তন ২ লাখ ৬৬ হাজার বর্গফুট। এখানে বিজিএমইএর অফিস, সভাকক্ষ ছাড়াও সদস্যদের জন্য অ্যাপারেল ক্লাব রয়েছে। অন্যান্য ফ্লোরে বেশ কয়েকটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় রয়েছে।

২০১১ সালের ৩রা এপ্রিল জমির স্বত্ব না থাকা ও জলাধার আইন লঙ্ঘন করে ভবন নির্মাণ করায় বিজিএমইএ ভবন ভাঙার রায় ঘোষণা করেন হাইকোর্ট। এর বিরুদ্ধে আপিল খারিজ হয়ে যায়। রিভিউ আবেদনও ৫ই মার্চ খারিজ হয়ে যায়।

এর আগে বাংলাদেশের একটি ইংরেজি দৈনিকে আইন না মেনে ভবন নির্মাণের বিষয়ে খবর ছাপা হলে তা আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী।

আরো পড়তে পারেন:

নৌবাহিনীতে আজ থেকে যুক্ত হচ্ছে দুটি সাবমেরিন

ধর্ষণের অভিযোগ করে হেনস্থার শিকার রোহিঙ্গা নারী

কীভাবে উত্তরপ্রদেশে এত বিপুল জয় পেল বিজেপি

সম্পর্কিত বিষয়