সৌদি আরবে নারী কাউন্সিল চালুর অনুষ্ঠানে নারীরা কোথায়

সৌদি আরবে কাসিম গালর্স কাউন্সিলের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মঞ্চে ছিলেন ১৩জন পুরুষ (ছবিতে অবশ্য সবাইকে দেখা যাচ্ছে না) ছবির কপিরাইট Qassim Girls School
Image caption সৌদি আরবে কাসিম গালর্স কাউন্সিলের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মঞ্চে ছিলেন ১৩জন পুরুষ (ছবিতে অবশ্য সবাইকে দেখা যাচ্ছে না)

প্রকাশ্য প্ল্যাটফর্মে নারীদের মতপ্রকাশের সুযোগ দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত সৌদি আরবের মত দেশের জন্য খুবই উৎসাহব্যঞ্জক।

কিন্তু আল-কাসিম প্রদেশে মেয়েদের এই কাউন্সিল উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে যখন এই ইতিবাচক উদ্যোগ তুলে ধরা হল তখন দেখা গেল কর্তৃপক্ষ একটা বিষয় খেয়াল করে নি: নারীর উপস্থিতি।

কাসিম গালর্স কাউন্সিলের বৈঠকের যে প্রচারণামূলক ছবি প্রকাশ করা হয় তাতে দেখা যায় ১৩জন পুরুষ মঞ্চে বসে আছেন, সেখানে কোন নারী নেই।

তবে নারীরা কার্যত ছিলেন অন্য আরেকটি ঘরে এবং তাদের কাউন্সিলের বৈঠকের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছিল ভিডিওর মাধ্যমে।

সৌদি আরবে আত্মীয়তার সম্পর্ক নেই এমন নারী পুরুষকে পৃথক রাখার নীতি কঠোরভাবে মেনে চলা হয়।

তবে এইধরনের নীতি কিছুটা শিথিল করার সরকারি উদ্যোগের অংশ হিসাবে নেওয়া প্রথম এধরনের বৈঠকে পুরুষ-প্রধান এই নারী কাউন্সিলের ছবিটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে।

আরও পড়ুন:

কর্মস্থলে হিজাব পরা নিষিদ্ধ করা যাবে: ইউরোপীয় আদালত

৯৯ টি টেস্ট খেলে যা অর্জন করেছে বাংলাদেশ

রাখাইনে সৈন্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করে হেনস্থার শিকার রোহিঙ্গা এক নারী

এই ছবিটির সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে এরকমই আরেকটি ছবির যেটিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোড়ন তুলেছিল। সেটি ছিল জানুয়ারি মাসে আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের গর্ভপাত নীতি স্বাক্ষরের ছবি, যেখানে তাকে ঘিরেছিলেন শুধু পুরুষরা।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওভাল অফিসে গর্ভপাত সংক্রান্ত নির্দেশে সই করছেন।

সৌদি আরবে নারীদের ওই কাউন্সিলের উদ্বোধন করেন ওই প্রদেশের গর্ভনর প্রিন্স ফয়সাল বিন মিশাল বিন সউদ। তিনি বলেন তিনি এই উদ্যোগে গর্বিত এবংএটি সৌদি আরবে এধরনের প্রথম উদ্যোগ।

"কাসিম প্রদেশে নারীরা পুরুষদের কাছে বোনের মত এবং নারীদের কাজের ক্ষেত্রে আরো সুযোগ তৈরির বিষয়টি আমরা একটা দায়িত্ব বলে মনে করি,'' বলেন তিনি।

এই নারী কাউন্সিলের প্রধানের পদে রয়েছেন প্রিন্সেস আবির বিন্ত সালমান, যিনি প্রিন্স ফয়সালের স্ত্রী। তিনিও ছবিতে অনুপস্থিত।

সৌদি আরবে প্রকাশ্য স্থানে অপরিচিত নারী পুরুষের একসঙ্গে বসার ব্যাপারে কঠোর বিধিনিষেধ থাকলেও দেশটির 'ভিশন ২০৩০' কর্মসূচির অংশ হিসাবে এধরনের নীতি কিছু কিছু শিথিল করা হচ্ছে।

তাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ শতকরা ২২ভাগ থেকে বাড়িয়ে শতকরা ৩০ভাগ করা।

নারীদের এই কাউন্সিল উদ্বোধন করে প্রিন্স ফয়সাল বলেন ''আমাদের সমাজের অর্ধেই নারী'', যদিও এই ছবি প্রিন্সের কথার সাক্ষ্য বহন করে না।

সম্পর্কিত বিষয়