আসামে গানের অনুষ্ঠান বন্ধের ডাক দিয়েছেন মৌলবিরা

গানের অনুষ্ঠানে নাহিদা আফ্রিন ছবির কপিরাইট ফেসবুক
Image caption গানের অনুষ্ঠানে নাহিদা আফ্রিন

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামে ৪০ জনেরও বেশি মৌলবি একটি গানের জলসা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

ঐ অনুষ্ঠানে আসামের জনপ্রিয় কিশোরী গায়িকা নাহিদ আফ্রিনের গান করার কথা।

কিন্তু গান গাওয়া এবং রাত পর্যন্ত নারী-পুরুষ একসঙ্গে বসে জলসা দেখা - এগুলো শরিয়ত বিরোধী বলে উল্লেখ করে হোজাই এবং নগাঁও জেলায় হ্যান্ডবিল বিলি করা হচ্ছে।

তবে অনুষ্ঠানটির সংগঠক আর গায়িকা আফ্রিন - উভয়েই ঘোষণা করেছে যে ঐ জলসা হবেই।

রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারও বলেছে, আসামের জনপ্রিয় ওই গায়িকাকে তারা সবরকম সুরক্ষা দেবে।

আসামের নগাঁও জেলার একটা ছোট শহর উদালী। সেখানকার স্থানীয় কলেজ মাঠে ২৫শে মার্চ একটি সঙ্গীত সন্ধ্যার আয়োজন করেছে উদালী ক্রীড়া সংস্থা।

ভারতের একটি জনপ্রিয় গানের রিয়েলিটি শোয়ে বছর দুয়েক আগে দ্বিতীয় স্থান পাওয়া আসামেরই কিশোরী নাহিদ আফ্রিনই ওই সন্ধ্যার প্রধান আকর্ষণ।

টিকিট বিক্রি, চাঁদা তোলা, প্যান্ডেল বাঁধা - এসব কাজ চলার মধ্যেই দু'দিন আগে উদালী বাজারে হ্যান্ডবিল বিলি করা শুরু হয় ঐ গানের অনুষ্ঠানটি বর্জন করার আহ্বান জানিয়ে।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption অধিকার রক্ষায় আসামের মুসলমানদের আন্দোলন

নগাঁও আর হোজাই জেলার মৌলবি, মাদ্রাসা শিক্ষকসহ ৪৬ জনের নাম করে আবেদন জানানো হয় ঐ হ্যান্ডবিলে যে গান গাওয়া, রাত পর্যন্ত নারী পুরুষ একসঙ্গে বসে জলসা দেখা, এগুলো শরিয়ত বিরোধী। তাই ঐ অনুষ্ঠান বর্জন করা উচিত।

ঐ আবেদনে নাম রয়েছে এমন একজন আসাম রাজ্য জমিয়ত উলেমার সাধারণ সম্পাদক মৌলানা আব্দুর রশীদ ক্কাশিমী বলছেন, রাত্রিবেলায় পুরুষ-মহিলারা সব একসঙ্গে যাবেন। শরিয়তে মহিলারা তো পর্দা ছাড়া যেতেই পারেন না।

"জলসা হলে আশপাশের মসজিদে নামাজ পড়া যাবে না। এই বিষয়গুলো কানে আসার পরে আলেমরা সিদ্ধান্ত নিই যে বিষয়টা মানুষকে জানানো দরকার যে এগুলো শরিয়ত গ্রহণ করে না।"

এই আবেদন সম্বলিত হ্যান্ডবিল ছড়িয়ে পড়ার পরে আসামের স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রচারিত হয় যে নাহিদ আফ্রিনের গান গাওয়ার ওপরে ফতোয়া জারি হয়েছে।

কিন্তু হ্যান্ডবিলের যে ছবি বিবিসি-র হাতে এসেছে, তাতে নাহিদ আফ্রিনের নাম উল্লেখ করা নেই, যদিও নির্দিষ্টভাবে ওই গায়িকার অনুষ্ঠান বর্জনের বিষয়টি লেখা হয়েছে।

এটাও লেখা হয়েছে যে পর্দা ছাড়া নারীদের সঙ্গীত পরিবেশন এলাকার ছেলে মেয়েদের ভবিষ্যৎ নষ্ট করে দেবে।

উদালীর যে কলেজ মাঠে নাহিদ আফ্রিনের গান গাওয়ার কথা, সেখানে আগেও গানের অনুষ্ঠান হয়েছে।

কিন্তু হঠাৎ করে এই অনুষ্ঠানটি শরিয়ত বিরোধী এবং সেটিকে বর্জন করার আহ্বান কেন জানানো হল, তা স্পষ্ট নয়।

Image caption গানের অনুষ্ঠান বয়কাটের ডাক দেয়া হ্যান্ডবিল

তবে অনুষ্ঠানের সংগঠন উদালী ক্রীড়া সংস্থা সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে ওই গানের অনুষ্ঠান হবেই।

নাহিদ আফ্রিন বা তাঁর পরিবারে সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি।

কিন্তু তিনি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ২৫শে মার্চ উদালীতে গানের অনুষ্ঠান তিনি করবেনই।

এদিকে মৌলবিদের আবেদনমূলক হ্যান্ডবিলের ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল ঘোষণা করেছেন, ঐ গায়িকাকে সবধরনের সুরক্ষা দেবে সরকার।

বিজেপি-র নেতৃত্বাধীন সরকারের মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পেছনে রাজনীতি রয়েছে বলে মনে করছে আসামের রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

সম্পর্কিত বিষয়