ঢাকায় তল্লাশি চৌকিতে র‍্যাবের গুলিতে বোমাবাহক নিহত

র‍্যাব ক্রাইমসিন ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption এখানেই র‍্যাবের গুলিতে মারা যায় অজ্ঞাত সেই মোটরসাইকেল আরোহী।

পুলিশের বিশেষ বাহিনী র‍্যাব বলছে, শনিবার ভোরবেলায় ঢাকার খিলগাঁও এলাকায় সড়কের ওপর বসানো একটি তল্লাশি চৌকিতে র‍্যাব সদস্যদের গুলিতে এক সন্দেহভাজন মোটরসাইকেলে আরোহী নিহত হয়েছে।

পরে তার পকেটে একটি এবং সঙ্গে থাকা ব্যাগে আরেকটি বোমা পাওয়া গেছে।

র‍্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ বিবিসি বাংলাকে বলেন, আজ ভোরবেলায়, সূর্য উদয়েরও পূর্বে খিলগাঁওয়ের 'শেখের জায়গা' নামে একটি সড়ক সংযোগে বসানো র‍্যাবের তল্লাশি চৌকি অতিক্রম করছিল ওই মোটরসাইকেল আরোহী।

এসময় র‍্যাব তাকে থামার সংকেত দিলে সে সেখান থেকে পালানোর চেষ্টা করে।

পরে র‍্যাব সদস্যরা পেছন থেকে তাকে গুলি করে।

গুলিতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

মোটরসাইকেলটির কোন নম্বর প্লেট ছিল না।

তার সঙ্গে থাকা ব্যাগটি দূরে ছিটকে যায়।

তাতে পরবর্তীতে একটি বোমা পাওয়া যায়।

নিহত যুবকটির শরীর তল্লাশি করে আরো একটি বোমা মেলে।

দুপুরে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল বোমা দুটি নিষ্ক্রিয় করে বলে জানা যাচ্ছে।

নিহত যুবকটির পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

মোটরসাইকেলটির মালিকানা সম্পর্কেও নিশ্চিত কোন তথ্য মেলেনি।

নিহত ব্যক্তিকে ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

র‍্যাব বলছে, শেখের জায়গা নামক মোড়টি থেকে ডেমরার দিকে যে রাস্তাটি চলে গেছে, সেটি অপরাধপ্রবণ একটি সড়ক।

এই সড়কটি মাদক আনা নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত হয়, এমন সন্দেহর ভিত্তিতে প্রায়ই সেখানে তল্লাশি চৌকি বসানো হয়।

গত রাতেও একই কারণে তল্লাশি চৌকি বসিয়ে রাতভর সেখানে সন্দেহভাজন যানবাহন থামিয়ে তল্লাশি চালানো হয়।

খিলগাঁওয়ের এই ঘটনাটি এমন সময় ঘটলো যখন গতকাল দুপুরেই ঢাকার বিমান বন্দরের কাছে র‍্যাবের একটি অস্থায়ী সদর দপ্তরের ফটকে এক অভিযুক্ত আত্মঘাতী জঙ্গি নিজের শরীর বাঁধা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

ওই বিস্ফোরণে হামলাকারী ব্যক্তিটি ছাড়া আর কেউ নিহত হয়নি।

পরে কথিত আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস এই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে।

সম্পর্কিত বিষয়