সীতাকুন্ডের 'জঙ্গি আস্তানা' থেকে ১৫টি বোমা উদ্ধার

ছবির কপিরাইট Facebook page of Sunny Sanwar
Image caption সীতাকন্ডের এই বাড়িটিতেই অভিযান চালানো হয়

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে যে বাড়িটিতে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানের সময় চারজন নিহত হয়, সেই বাড়ির একটি কক্ষ থেকে আজ ১৫টি বোমা উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবারের ওই অভিযানের সময় পুলিশের গুলিতে এক নারীসহ মোট চার জন নিহত হয়।

এদের একজনের কোমরে বিস্ফোরক বাঁধা ছিল। পুলিশের গুলি লেগে তাতে বিস্ফোরণ ঘটলে আরো তিন জন নিহত হয়।

বাড়িটির চারটি কক্ষে আরো বিস্ফোরক থাকতে পারে - এই সন্দেহে তল্লাশির জন্য ঢাকা থেকে বিশেষজ্ঞ দল আনা হয়।

একটি কক্ষ থেকে ১৫টি বোমা ছাড়াও একটি ড্রাম ভর্তি তরল পদার্থ পাওয়া যায় - যা ঠিক কি তা পুলিশ বলছে না।

আগমীকাল আরো দুটি কক্ষে তল্লাশি চালানো হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আরো পড়ুন : সীতাকুন্ডে জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে নিহত ৪

র‍্যাবের গুলিতে খিলগাঁওয়ে বোমাবাহক যুবক নিহত

র‍্যাবের ক্যাম্পে আত্মঘাতী হামলা আইএস-ই চালিয়েছে বলে দাবি

ঢাকায় র‍্যাবের ক্যাম্পে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ১

ছবির কপিরাইট Facebook page of Sunny Sanwar
Image caption সীতাকুন্ডের বাড়িটিতে সোয়াট

নিহতদের পরিচয় জানা যায় নি, তবে পুলিশের ধারণা তারা সবাই ছিল নব্য জেএমবির সদস্য। তবে তারা কেউ আত্মঘাতী ছিল বলে পুলিশ মনে করছে না।

এছাড়া এ ঘটনার একদিন পর চট্রগ্রাম শহরে একটি মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়েছে পুলিশ।

শহরের খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন জঙ্গি বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে হেফাজতে ইসলামের নেতা ইজাহারুল ইসলাম পরিচালিত লালখান বাজার মাদ্রাসায় আজ বিকেলে প্রায় দু'ঘন্টা ধরে তল্লাশী চালানো হয়।

২০১৩ সালে এ মাদ্রাসায় এক বিস্ফোরণে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছিলো।

সম্পর্কিত বিষয়