শক্তিশালী রকেট প্রযুক্তি তৈরির দাবি উত্তর কোরিয়ার

  • ১৯ মার্চ ২০১৭
ছবির কপিরাইট STR
Image caption উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থার জারি করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট এই প্রযুক্তির সফল পরীক্ষা উদযাপন করছেন

রকেট নিক্ষেপের প্রযুক্তিতে বড়ো ধরনের অগ্রগতির ঘোষণা দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এমন এক সময়ে এই ঘোষণা দেওয়া হলো যখন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন, বেইজিং-এ চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর সাথে সাক্ষাৎ করেছেন।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন তার দেশের শক্তিশালী এই রকেট ইঞ্জিন তৈরির ঘটনাকে উল্লেখ করেছেন একটি 'বৈপ্লবিক ঘটনা' হিসেবে। তবে নিরপেক্ষ কোনও সূত্র থেকে এই দাবির সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

উত্তর কোরিয়া বলছে এই প্রযুক্তি তাদের মহাকাশ কর্মসূচিতে ব্যবহার করা হবে, তবে যুক্তরাষ্ট্র-সহ পশ্চিমা দেশগুলোর আশঙ্কা যে এই প্রযুক্তিকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ার জন্য ব্যবহার করা হতে পারে।

কথিত এই শক্তিধর রকেট ইঞ্জিনের পরীক্ষা আদৌ হয়েছে কিনা, হলেও তা কতটা সফল হয়েছে, বা এই প্রযুক্তি আসলে কতটা শক্তিশালী - নিরপেক্ষ কোনও সূত্র থেকে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এখন পর্যন্ত এটা শুধু উত্তর কোরিয়ার দাবি।

অন্যান্য বারের মত এবারও এই পরীক্ষার খবর প্রথম ঘোষিত হয় উত্তর কোরিয়ার সরকারি টেলিভিশন কেআরটি-তে।

উচ্ছ্বসিত কন্ঠে টিভির ঘোষিকা জানান, "প্রতিরক্ষা বিভাগের বিজ্ঞানী এবং টেকনিশিয়ানরা আর একটি অলৌকিক কান্ড করেছেন। নতুন একটি উৎক্ষেপকের নকশা প্রস্তুত করে তার সফল পরীক্ষা করেছেন।"

ছবির কপিরাইট STR
Image caption এই সেই হাই -থ্রাস্ট রকেট ইঞ্জিনের গ্রাউন্ড জেট পরীক্ষার ছবি

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে কে উদ্ধৃত করে সরকারি বার্তা সংস্থা কেসিএনএ লিখেছে, উত্তর কোরিয়ার রকেট শিল্পে নতুন অধ্যায় সূচিত হয়েছে।

উত্তর কোরিয়া দাবি করেছে, উন্নত এই রকেট প্রযুক্তি তাদের মহাকাশ কর্মসূচিতে ব্যবহার করা হবে। তবে আমেরিকা এবং তার মিত্রদের ভয় পিয়ং ইয়ংয়ের আসল লক্ষ্য দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিকে শক্তিশালী করা।

নতুন এই রকেট পরীক্ষার ঘোষণা এমন সময় এলো যখন নতুন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন পূর্ব এশিয়া সফর করছেন, এবং আজই তিনি বেইজিংয়ে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সাথে বৈঠক করেছেন।

বিবিসির চীন বিষয়ক সম্পাদক ক্যারি গার্সিয়া বলছেন, মি টিলারসন এবং প্রেসিডেন্ট শি'র বৈঠক ছাপিয়ে এখন উত্তর কোরিয়ার এই রকেট পরীক্ষা নিয়েই বেশি কথা হচ্ছে।

উত্তর কোরিয়া এ পর্যন্ত মোট পাঁচটি পারমাণবিক পরীক্ষা চালিয়েছে। এছাড়া, বহুবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে।

অনেক পশ্চিমা সামরিক বিশেষজ্ঞেরই ধারণা উত্তর কোরিয়া এমন একটি পারমাণবিক বোমা বহনকারী দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে যেটি যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত করতে পারে।

সম্পর্কিত বিষয়