ভারতে আরেক রাজ্যে ‘অবৈধ’ কসাইখানা বন্ধের আদেশ

  • ২৮ মার্চ ২০১৭
ভারতের একটি কসাইখানা ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ভারতের একটি কসাইখানা

ভারতের উত্তরপ্রদেশের পর এবার ঝাড়খণ্ডেও 'অবৈধ' কসাইখানা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

কসাইখানাগুলোর মালিকদের ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়ে বলা হয়েছে, হয় যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লাইসেন্স নিন, নয়তো কসাইখানাগুলো বন্ধ করে দিন।

এই রাজ্যটিতেও রয়েছে হিন্দু জাতীয়তাবাদী দল বিজেপির নেতৃত্বাধীন সরকার।

এদিকে, উত্তর প্রদেশের 'বৈধ' মাংস বিক্রেতারা গতকাল সোমবার থেকে একটি অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট পালন করছে।

তাঁরা বলছেন, কর্তৃপক্ষ এবং হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠীর লোকেরা তাদেরকে হয়রানী করছে।

আরো পড়ুন:

উত্তরপ্রদেশে কসাইখানা বন্ধের প্রতিবাদে মাংস ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট

উত্তর প্রদেশ রাজ্যের জনসংখ্যার ১৮ শতাংশই মুসলমান, আর মাংস ব্যবসায়ীদের একটি বড় অংশই এই ধর্মীয় সম্প্রদায়ের।

নির্বাচনের আগে বিজেপি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল যে ক্ষমতায় এলে তারা 'অবৈধ' কসাইখানাগুলো বন্ধ করে দেবে।

জানা যাচ্ছে, উত্তরপ্রদেশে ক্ষমতা গ্রহণের সাথে সাথেই মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ পুলিশকে নির্দেশ দেন সমস্ত অবৈধ কসাইখানা এবং মাংসের দোকানে তালা লাগিয়ে দিতে।

বিজেপির এই নেতার মতে, মাংস বেচাকেনা ভারতের সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দুদের জন্য খারাপ।

কিন্তু মাংস ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন, বৈধ-অবৈধ তোয়াক্কা না করেই সব কসাইখানা বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বলছে, উত্তরপ্রদেশে গরু জবাই নিষিদ্ধ হলেও বেশিরভাগ ব্যবসায়ী ছাগল, মহিষ এসব পশুর মাংস বিক্রি বৈধ। যারা এমন ব্যবসা করেন তাদের দোকানও বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তাদের।

সম্পর্কিত বিষয়