যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনায় জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তনিও গুতেরেস

  • ৫ এপ্রিল ২০১৭
ছবির কপিরাইট AFP
Image caption আন্তোনিও গুতেরেস বলছেন একটি ভ্রান্ত ধারনার ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্র এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিল থেকে যুক্তরাষ্ট্র অর্থায়ন প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়ার পর জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তনিও গুতেরেস বলেছেন মার্কিন এই সিদ্ধান্ত বিশেষ করে বিশ্বব্যাপী নারী ও কন্যা শিশুদের জন্য একটি ভয়াবহ খবর।

জাতিসংঘের বেশ কিছু সংস্থার মতো এর জনসংখ্যা তহবিলও বিশ্বব্যাপী নানা সরকারের অর্থ সহায়তায় পরিচালিত হয়।

জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিলে চতুর্থ দাতা দেশ যুক্তরাষ্ট্র। শুধুমাত্র এ বছর এই তহবিলে যুক্তরাষ্ট্রের দেবার কথা ছিলো ৩২ মিলিয়ন ডলার।

বিশ্বের ১৫০টি দেশে পরিবার পরিকল্পনা ও জনসংখ্যা রোধের মতো নানা কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে সংস্থাটি।

ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় যাওয়ার আগে বিভিন্ন তহবিলে অর্থ বন্ধ করে দেয়ার যেসব প্রতিশ্রুতি করেছিলেন এটি তার মধ্যে প্রথম।

মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট বলছে, এই তহবিল গর্ভপাত এবং চীনে অনিচ্ছাকৃত বন্ধ্যা-করণের মতো কাজে সহায়তা করছে।

আন্তোনিও গুতেরেস বলছেন, এই সংস্থাটি বিশ্বব্যাপী যে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে সে সম্পর্কে একটি ভ্রান্ত ধারনার ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্র এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে এই তহবিল বন্ধ রাখার ব্যাপারে কোন মার্কিন প্রশাসনের এটিই প্রথম সিদ্ধান্ত নয়।

প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যান, জর্জ বুশ এবং তার ছেলে জর্জ ডব্লিউ বুশের সময়েও একই কারণে জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিলে অর্থ সহায়তা দেয়া বন্ধ রেখেছিলো মার্কিন সরকার।

এর আগে বছরের শুরুতে বিশ্বব্যাপী গর্ভপাতের সেবা ও পরামর্শ দেয় এমন যে কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য অর্থ সহায়তা নিষিদ্ধ করে ট্রাম্প সরকার।