নওয়াজ শরীফের রাজনৈতিক ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ

  • ২০ এপ্রিল ২০১৭
ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption নওয়াজ শরীফ

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের ভাগ্য জানতে দেশটির সবাই এখন তাকিয়ে আছে দেশটির সুপ্রিম কোর্টের দিকে।

আজই আদালত মিস্টার শরীফের বিদেশে ব্যবসার বৈধতা নিয়ে হওয়া একটি দুর্নীতির মামলার আদেশ দেয়ার কথা রয়েছে।

আদালতের আদেশ বিপক্ষে গেলে তাঁকে ক্ষমতা থেকেও সরে দাঁড়াতে হতে পারে।

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে তাঁর তিন সন্তানের নাম বিদেশে থাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সাথে সম্পৃক্ত আছে বলে প্রকাশ পেলে এ নিয়ে দেশটিতে তীব্র বিতর্ক দেখা দেয়।

যদিও মিস্টার শরীফ ও তার পরিবার কোনো ধরণের অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

সরকারের দিক থেকে আশা প্রকাশ করা হয়েছে মিস্টার শরীফ সব অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পাবেন।

দেশটির বিরোধী নেতা ইমরান খান নওয়াজ শরীফের তীব্র সমালোচনা করে রাস্তায় বিক্ষোভের হুমকি দিয়েছেন।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption পানামা পেপার্স নামে পরিচিত ফাঁস হয়ে যাওয়া অফশোর অ্যাকাউন্টের তথ্যের একটি তালিকা অনলাইনে প্রকাশ করা হয়েছিলো

আরও পড়ুন:

'মধ্যপ্রাচ্যের সব সমস্যার মুলেই ইরান'

বেতন হিসেবে ছাগল-ভেড়া নিচ্ছে জিম্বাবুয়ের স্কুল

উত্তর কোরিয়ার পারমানবিক যুদ্ধের হুমকিতে উদ্বিগ্ন চীন

গত বছর মে মাসে পানামা পেপার্স নামে পরিচিত ফাঁস হয়ে যাওয়া অফশোর অ্যাকাউন্টের তথ্যের একটি তালিকা অনলাইনে প্রকাশ করা হয়েছিলো।

নিজেদের ওয়েবসাইটে তথ্য প্রকাশে পর অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের সংগঠন আই সি আই জে বলেছিলো যে, এই ডেটাবেজে উল্লেখিত সবাই যে অবৈধ কাজ করেছে তা নয়, তবে এর মাধ্যমে অনেকে কর ফাঁকি বা আর্থিক তথ্য লুকানোর চেষ্টা করতে পারে।

আইনি প্রতিষ্ঠান মোজাক ফনসেকার ফাঁস হয়ে যাওয়া নথি, পানামা পেপার্সের মাধ্যমে বিশ্বের অনেক রাজনীতিবিদ, সরকারী কর্মকর্তা, রাষ্ট্রপ্রধান থেকে শুরু করে চিত্রতারকা এবং তারকা খেলোয়াড়দেরও গোপন সম্পদের খবর ফাঁস হয়ে যায়।

জার্মান একটি পত্রিকার কাছে 'জন ডো' নামে পরিচিত একটি সূত্র এই তথ্যগুলো ফাঁস করে দেয়।

পরবর্তীতে অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অফ ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্ট এই তথ্য প্রকাশ করে।

তবে মোজাক ফনসেকা দাবী করছে, তারা বেআইনি কোন কাজ করেনি।

সম্পর্কিত বিষয়