শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানায় চারটি দেহ উদ্ধার

ছবির কপিরাইট RABIUL HASSAN
Image caption চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গী আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়িকে ঘিরে রেখেছিল পুলিশ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবপুর উপজেলার শিবনগর গ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়ি ঘিরে অভিযান শেষে চার জন নিহত হয়েছে বলে বলছে পুলিশ।

তারা আরও জানিয়েছে ওই বাড়িটি থেকে একজন নারী ও শিশুকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

জেলার এসপি মোজাইদুল ইসলাম বিবিসিকে জানিয়েছেন অপারেশন ঈগল হান্ট নামে ঐ অভিযানে যে চার জন নিহত হয়েছে তার মধ্যে নব্য জেএমবির সদস্য আবু নামের এক ব্যক্তি রয়েছে। বাকি নিহত তিন জনের পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

আহত অবস্থায় উদ্ধার করা নারী ও শিশুটি আবু নামে ঐ ব্যক্তির স্ত্রী ও কন্যা বলে পুলিশের দাবি। এদিকে বাড়িটিতে এখন বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল অবস্থান করছে।

এই অপারেশনের নাম দেওয়া হয়েছিল অপারেশন ঈগল হান্ট। গতকাল বুধবার বিকাল থেকে শুরু হয় এই অভিযান ঘন্টা দুয়েক পর স্থগিত করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবারো শুরু হয় অভিযান। সন্ধার সময় পুলিশ কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের বলেন চারজন জঙ্গির মৃতদেহ বাড়িটির ভিতরে রয়েছে।

এর আগে দিনভর শিবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা বাড়িটি থেকে দফায় দফায় গুলির শব্দ পাওয়া যায়।

স্থানীয় সাংবাদিক রবিউল ইসলাম ডলার জানান বেলা এগারটার দিকে শোনা যায় বিস্ফোরণের শব্দও।

এর আগে সকাল নয়টার দিকে শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুল ইসলাম বিবিসিকে জানিয়েছিলেন সকাল থেকেই গুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন:

ভারতের পাঞ্জাবে দুই মহিলার মধ্যে বিয়ে নিয়ে তুমুল হৈচৈ

বাংলাদেশে প্রবীণ জনগোষ্ঠি বাড়ছে, কিন্তু চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুতি কতটা?

আইসিসিতে শোচনীয় পরাজয়, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলবেনা ভারত?

এর আগে বুধবার ওই বাড়ি ঘেরাওয়ের পর চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ কর্মকর্তা মাইনুল ইসলাম বিবিসিকে বলেছিলেন যে বাড়িটিতে আবু নামের একজন রয়েছেন।

"তিনি এখানে মুদির ব্যবসা করলেও, ভেতরে ভেতরে জঙ্গি সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ততা আছে। আরো কয়েকজনের এখানে আসা যাওয়া থাকতে পারে।''

তিনি বলেন, ''যখন (বুধবার) আমরা এখানে ঢুকতে যাই, তখন আমাদের উপর গুলি করা হয়। এখন সোয়াট টিম এসেছে, তারা অভিযান শুরু করেছে।''

বাড়ির বাসিন্দাদের সম্পর্কে তিনি জানান, আবুর সঙ্গে তার স্ত্রী আছে। আর কেউ কেউ বলছেন একটি বাচ্চা আছে, আবার কেউ কেউ বলছেন, তাদের সঙ্গে দুইটি বাচ্চা রয়েছে।

বাড়িটি ঘেরাও করার পর থেকেই আশেপাশের এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে এবং পার্শ্ববর্তী বাড়িগুলোর বাসিন্দাদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সেখানে কাউকে যেতে বা বের হতে দেয়া হচ্ছে না।

সম্পর্কিত বিষয়