'বিশ্বের সবচেয়ে ভারী' মহিলা মুম্বাই ছেড়ে আবুধাবির হাসপাতালে যাচ্ছেন

ছবির কপিরাইট সাইফি হাসপাতাল
Image caption এমান আবদ এল আতি

পাঁচশ' কেজি ওজনের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ভারী মহিলা বলে পরিচিতি পাওয়া এমান আবদ এল আতি-কে ভারতের মুম্বাইয়ের হাসপাতালে চিকিৎসা বন্ধ করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

মুম্বাইয়ের সাইফি হাসপাতালে মিশরীয় নাগরিক এমানের চিকিৎসার ফলে তার ওজন কমেছে কিনা - তা নিয়ে ডাক্তারের সাথে এমানের বোনের এক বিবাদ তৈরি হবার কারণেই এই হাসপাতাল পরিবর্তন।

সাইফি হাসপাতাল বলছে, সেখানে এমানের ওজন কমানোর জন্য অপারেশন করানো হয়েছে, এবং তার ফলে তার ওজন এখন ১৭২ কেজি। সুতরাং তিনি এখন হাসপাতাল ছেড়ে যেতে পারেন, বলছেন ডাক্তাররা।

কিন্তু এমানের বোন শায়মা সেলিম বলেন, ডাক্তাররা 'মিথ্যে বলছেন' এবং তার মুম্বাইতেই থাকা প্রয়োজন।

হাসপাতালের ডাক্তা মুফি লাকড়াওয়ালা এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

সাইফি হাসপাতাল বলছে, তারা তাদের চিকিৎসার জন্য গর্বিত, কারণ এমানকে মালবাহী বিমান চার্টার করে আনা হয়েছিল, কারণ সাধারণ বিমানে তাকে ঢোকানো সম্ভব ছিল না। কিন্তু তিনি ফিরে যাচ্ছেন সাধারণ যাত্রীবাহী বিমানে, বিজনেস ক্লাসে।

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption অপারেশন করে এভাবেই এমানের পাকস্থলী ছোট করে দেয়া হয়েছে

এমানের বোন শায়মা বলেন তার বোন সুস্থ নন, তাকে সব সময় অক্সিজেন মুখোশ পরে থাকতে হয়, নল দিয়ে খাবার খাওয়ানো হয়।

এই বিবাদের ফলে এখন এমানকে মুম্বাইয়ের হাসপাতালটি ছেড়ে যেতে হচ্ছে। তাকে আবুধাবির বুরজিল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে।

জানুয়ারি মাসে মিশর থেকে বিশেষ ব্যবস্থায় এমানকে মুম্বাই আনা হয়েছিল।

চিকিৎসক ডাক্তার লাকড়াওয়ালার নেতৃত্বে একটি দল অপারেশন করে এমানের পাকস্থলীর আকার ছোট করে দেন, যাতে ক্ষুধা ও খাবারের পরিমাণ কমিয়ে তার ওজন কমানো যায়।

আরো পড়ুন:

হামিদ মীরের পুরস্কার ফেরৎ: বাংলাদেশের প্রতিক্রিয়া

সম্পর্কিত বিষয়