ঢাকার ক্রিকেট ম্যাচে চার বলে ৯২ রান দেওয়া বোলার সুজন ও লালমাটিয়া ক্লাব নিষিদ্ধ

  • ২ মে ২০১৭
ছবির কপিরাইট MUNIR UZ ZAMAN
Image caption বাংলাদেশে ক্রিকেট নিয়ে উন্মাদনা বাড়ছে

বাংলাদেশে ঘরোয়া এক ক্রিকেট ম্যাচে ৪ বলে ৯২ রান দেওয়া বোলার সুজন মাহমুদ দশ বছরের জন্য নিষিদ্ধ। আজীবন নিষিদ্ধ হয়েছে লালমাটিয়া ক্লাব। একই ধরনের অপরাধে নিষিদ্ধ হয়েছে ফিয়ার ফাইটার্স ক্লাব এবং তার বোলার তাসনিম।

এপ্রিলের ১১ তারিখ ঢাকার দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট লীগের এক ম্যাচে এক ওভারের প্রথম চার বলে ৯২ রান হওয়ার ঘটনা দেশ ছাড়িয়ে বিদেশের মিডিয়াতেও তোলপাড় তোলে।

লালমাটিয়া ক্লাবের বোলার সুজন মাহমুদ প্রতিপক্ষ এক্সিওম ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে বল করতে গিয়ে নো-বল এবং ওয়াইড বলের বন্যা বাধিয়ে দেন। চার বলে ওয়াইড করেন ৬৫ বার। রান গিয়ে দাঁড়ায় ৯২।

এই কেলেঙ্কারি সোশ্যাল মিডিয়া এবং স্থানীয় কয়েকটি মিডিয়াতে আসলে তা নিয়ে বিস্ময় এবং ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। লালমাটিয়া ক্লাবের পক্ষ থেকে বলা হয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে প্রতিবাদে বোলার এই কাণ্ড করেছেন।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশে 'রক্তাক্ত' হকি: গোলের বন্যা, নাকি সুনামি?

ঐ ঘটনার পর জানা যায় আগের দিনও এক ম্যাচে একই কেলেঙ্কারি হয়েছে। ফিয়ার ফাইটার্স নামের এক ক্লাবের বোলার তাসনিম আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে ১ ওভার ১ বলে ওয়াইড আর নো বল করে ৬৯ রান দেন।

হৈচৈ হওয়ার পর এক তদন্ত কমিটি গঠন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিবি। কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে আজ (মঙ্গলবার) দুই ক্লাব এবং অভিযুক্ত দুই বোলার, কোচ, অধিনায়ক এবং দুই আম্পায়ারের বিরুদ্ধে দণ্ড ঘোষণা করা হয়।

বোলার সুজন মাহমুদ এবং তাসনিমকে ক্রিকেট থেকে ১০ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

লালমাটিয়া ক্লাব এবং ফিয়ার ফাইটার্সকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

ঐ দুই ক্লাবের ম্যানেজার, কোচ এবং অধিনায়ক নিষিদ্ধ হয়েছেন পাঁচ বছরের জন্য।

আর বিতর্কিত ঐ দুই ম্যাচের আম্পায়াররা নিষিদ্ধ হয়েছেন ৬ মাসের জন্য।

আরও পড়ুন:একাউন্ট হ্যাক করে তথ্য নিতেন 'জঙ্গি' আইটিপ্রধান

সম্পর্কিত বিষয়