সাত কেজি সোনা ফেরত দিয়ে প্রশংসা কুড়ালো শাহজালাল বিমানবন্দর কর্মী

  • ৩ মে ২০১৭
শাহজালালাল বিমানবন্দর সোনা চোরাচালানের একটি নিয়মিত রুট ছবির কপিরাইট শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর
Image caption শাহজালালাল বিমানবন্দর এধরনের সোনা চোরাচালানের একটি নিয়মিত রুট

বাংলাদেশের শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দরের দুজন পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে তাদের সততার জন্য সম্মাননা প্রদান করেছে।

কর্মকর্তারা বলছেন, বেসরকারি ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের পরিচ্ছন্নতা কর্মী আবদুল কাদের এবং আলমাস হোসাইন কলকাতা থেকে আসা একটি ফ্লাইট পরিষ্কার করার সময় উড়োজাহাজের সিটের নিচের অংশে একটি প্যাকেট দেখতে পান।

প্যাকেটে চোরাই পথে আনা সোনা থাকতে পারে এই সন্দেহের ভিত্তিতে তারা এয়ারলাইন্সের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানান।

এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ বিষয়টি শাহজালাল বিমানবন্দরের কাস্টমস কর্তৃপক্ষের নজরে আনে এবং প্যাকেটগুলো তাদের হাতে তুলে দেয়।

পরে প্যাকেট খুলে ভেতরে প্রতিটি ১১৬ গ্রাম ওজনের ৬০টি সোনার বার পাওয়া যায়। উদ্ধার করা সোনার মোট ওজন প্রায় সাত কিলোগ্রাম।

কর্মকর্তারা বলছেন জব্দ করা সোনার বাজার মূল্য প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা।

বুধবার ঢাকায় শুল্ক গোয়েন্দার সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে আবদুল কাদের এবং আলমাস হোসাইনের ব্যক্তিগত সততার স্বীকৃতি হিসেবে তাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মাননার মধ্যে রয়েছে একটি ক্রেস্ট ও একটি প্রশংসাপত্র।

শুল্ক কর্মকর্তারা বলছেন, বিমানবন্দরে চোরাচালানের সোনা নিজ উদ্যোগে কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা অথবা কর্তৃপক্ষকে জানানো একটি বিরল ঘটনা।

তবে এই সোনা কীভাবে এবং কোথা থেকে ঐ বেসরকারি বিমানে চড়ে ঢাকায় এসে নামলো সরকারি বয়ানে তার কোন ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি।

আরো দেখুন:

ওসামা বিন লাদেনের জীবনের শেষ কয়েক ঘণ্টা

'বাংলাদেশে স্বাধীন মতপ্রকাশ পুরোপুরি রুদ্ধ'

বিয়ের আসরে ভুয়া বরযাত্রী: পাত্র কারাগারে

সম্পর্কিত বিষয়