কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও তার বাচ্চার কিছু ছবি যখন ভাইরাল

  • ১৩ মে ২০১৭
প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে তার তিন বছরের বাচ্চা ছবির কপিরাইট JUSTIN TRUDEAU
Image caption প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে তার তিন বছরের বাচ্চা শিশু

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো সোশাল মিডিয়াতে খুবই জনপ্রিয় একটি মুখ। তার ছবি প্রায়শই ফেসবুক টুইটারসহ ইন্টারনেটের অন্যান্য মাধ্যমে প্রায়শই ভাইরাল হয়ে পড়ে।

তার ছবি দেখে সারা বিশ্বের অন্যান্য রাষ্ট্রনায়করা হয়তো বুঝতে পারেন যে কিভাবে প্রচারণা চালাতে হয়।

এবার তার কিছু ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে যে মি. ট্রুডো তার তিন বছরের বাচ্চাকে নিয়ে অফিস করতে এসেছেন।

অন্ধকার সাইবার জগতের এক হ্যাকারের গল্প

বাংলাদেশেও র‍্যানসমওয়্যারের আক্রমণ

কানাডার প্রধানমন্ত্রী মি. ট্রুডো এসব ছবি তার ফেসবুকে ব্যবহার করেছেন।

ছবির কপিরাইট JUSTIN TRUDEAU
Image caption লুকোচুরি খেলা

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করার পাশাপাশি তাকে অফিসে ছোট্ট বাচ্চাটির সাথে মজা করতে, দৌড়াতে, খেলতেও দেখা গেছে। কিন্তু তার কাজ থেমে থাকেনি। বাচ্চাকে সাথে নিয়েই তিনি মিটিং করেছেন, পার্লামেন্টে প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন।

এসব কাজের ফাঁকে ফাঁকেও জাস্টিন ট্রুডো তার ছোট্ট শিশুটির সাথে লুকোচুরি খেলেছেন।

ছবির কপিরাইট JUSTIN TRUDEAU
Image caption সন্তানকে সাথে নিয়েই ফটোগ্রাফারদের মুখোমুখি

হাড্রিয়েন ট্রুডোর সাথে প্রধানমন্ত্রী বাবার এরকম বেশ কিছু ছবি সোশাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়েছে।

ছবিতে তাদের দুজনকে একসাথে দেখা যাচ্ছে যখন তারা ফটোগ্রাফার এমনকি রাজনীতিকদেরকেও সামাল দিচ্ছেন।

এসব ছবির নিচে সোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা নানা রকমের মন্তব্যও করছেন।

ছবির কপিরাইট JUSTIN TRUDEAU
Image caption প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর সাথে তার তিন বছরের শিশু

একজন লিখেছেন, "প্রচারণার জন্যে এসব ছবি কাজে দেবে কি দেবে না সেই বিতর্ক থাকলেও বলতে হবে যে মি. ট্রুডো তার পরিবারকে বেশ গুরুত্ব দেন।"

পঁয়তাল্লিশ বছর বয়সী মি. ট্রুডো এর আগেও সারা বিশ্বের দৃষ্টি কেড়েছেন এধরনের ছবির কারণে।

তরুণ রাজনীতিক এজন্যে প্রচুর মানুষের প্রশংসাও পেয়েছেন।

ছবির কপিরাইট JUSTIN TRUDEAU
Image caption পিতা ও সন্তানের দৌড় প্রতিযোগিতা!

এছাড়াও তিনি সিরিয়ার শরণার্থী ও সমকামীদের প্রতি সমর্থন এবং নিজেকে প্রকাশ্যে নারীবাদী বলে পরিচয় তিনি সমর্থকদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

এসব ছবি জাস্টিন ট্রুডোর ফেসবকু অ্যাকাউন্ট থেকে নেওয়া।