বনানী ধর্ষণ: নাঈম আশরাফ সাত দিনের রিমাণ্ডে, জবানবন্দি দিলেন শাফাত ও সাদমান

  • ১৮ মে ২০১৭
ঢাকা, ধর্ষণ, বাংলাদেশ ছবির কপিরাইট ফোকাস বাংলা
Image caption নাঈম আশরাফের সাত দিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেছে আদালত

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার বনানীতে জন্মদিনের পার্টিতে ডেকে দুই বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় সর্বশেষ আটক হওয়া নাঈম আশরাফের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

বুধবার রাতে ঢাকার কাছে মুন্সিগঞ্জ থেকে গ্রেফতারের পর আজ তাকে আদালতে উপস্থাপন করে দশ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলো পুলিশ।

এদিকে এর আগেই সকালে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও পুলিশের কাউন্টার-টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম মহানগর পুলিশ কার্যালয়ে এক আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে জানান যে ধর্ষণের ঘটনায় নাঈম আশরাফের ভূমিকাই বেশি ছিলো।

পরে আদালতে পুলিশ যে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তাতেও বলা হয়েছে যে নাঈম আশরাফ সরাসরি ধর্ষণে অংশ নিয়েছে।

তবে আদালতে মি. আশরাফের আইনজীবী আবদুর রহমান হাওলাদার এ অভিযোগ সত্যি নয় বলে দাবি করেন।

গত ২৮শে মার্চ বনানীর একটি হোটেলে দুই ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হন বলে অভিযোগ করেন ৬ই মে থানায় দায়ের করা মামলায়।

মামলার মোট পাঁচ জন আসামীর মধ্যে চারজনকে আগে গ্রেফতার করা হয়েছিল, এবং গ্রেফতারের পরে পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে।

নাঈম আশরাফ একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির কর্ণধার। মামলার এজাহারে তার নাম নাঈম আশরাফ হলেও পুলিশ তাকে এস এম হালিম নামেও চিহ্নিত করেছে।

ওদিকে, মামলার অভিযুক্ত শাফাত আহমেদ ও সাদমান সাকিফকে রিমান্ডে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। এরপর ঐ দুজন এ ঘটনায় আদালতে আজ জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সম্পর্কিত বিষয়