রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বরখাস্ত এফবিআই ডিরেক্টর কোমিকে ‘পাগল’ বলে অভিহিত করেন এবং বলেন তাকে বরখাস্ত করে তিনি ‘চাপমুক্ত’ হয়েছেন

  • ২০ মে ২০১৭
হোয়াইট হাউজে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও সের্গেই ল্যাভরভ ছবির কপিরাইট AFP
Image caption হোয়াইট হাউজে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও সের্গেই ল্যাভরভের সাক্ষাতের এই ছবিটি প্রকাশ করেছে রাশিয়া।

এবার মার্কিন গণমাধ্যমে খবর এসেছে যে হোয়াইট হাউজে সিনিয়র রুশ কর্মকর্তাদের সাথে এক আনুষ্ঠানিক বৈঠকে সাবেক এফবিআই ডিরেক্টর জেমস কোমিকে 'সত্যিকারের পাগল' বলে অভিহিত করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সেই সাথে মি. কোমিকে চাকুরিচ্যুত করার মাধ্যমে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে তিনি কতটা চাপমুক্ত হয়েছেন, সেই বর্ণনাও দিয়েছেন।

মি. ট্রাম্প বলেন, "রাশিয়ার কারণে আমি বিরাট চাপের মুখে ছিলাম। এখন সেই চাপ নেমে গেছে।"

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এবং রাষ্ট্রদূত সের্গেই কিসলিয়াকের সাথে গত সপ্তাহে ওভাল অফিসে বৈঠকটি হয়।

রুশ যোগাযোগ নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যে অভিযোগটি রয়েছে, তার কেন্দ্রবিন্দুতেই রয়েছেন এই মি. কিসলিয়াক।

ওই বৈঠকের লিখিত বিবরণীর বরাত দিয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেছে দ্য নিউইয়র্ক টাইমস।

প্রতিবেদনে মি. ট্রাম্পের বক্তব্যের যে ভাষার উল্লেখ আছে তা নিয়ে কোন প্রতিবাদ পর্যন্ত করেনি হোয়াইট হাউজ।

এমন সময়ে নিউইয়র্ক টাইমসে এই প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে যখন প্রথম রাষ্ট্রীয় সফরে সৌদি আরবের উদ্দেশ্যে ওয়াশিংটন ত্যাগ করেছেন মি. ট্রাম্প।

মি. কোমিকে যখন এফবিআইর ডিরেক্টরের পদ থেকে অব্যাহতি দেন মি. ট্রাম্প, তখন মি. কোমি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে রাশিয়ার সম্ভাব্য যোগসূত্র নিয়ে তদন্ত করছিলেন।

এদিকে, সিনেট ইন্টেলিজেন্স কমিটি বলছে যে মি. কোমি একটি উন্মুক্ত সভায় উপস্থিত হয়ে সাক্ষ্য দিতে সম্মত হয়েছেন।

সেটা হবে মেমোরিয়াল ডের ছুটির পরেই।