সমকামীদের বেত্রাঘাত 'উপভোগ' করলো শতশত মানুষ

ছবির কপিরাইট JUNAIDI
Image caption মসজিদের সামনে এ শাস্তি কার্যকর করা হয়।

ইন্দোনেশিয়ায় দু'জন সমকামীকে শাস্তি হিসেবে ৮৩ বার করে বেত্রাঘাত করেছে।

সাদা জামা পড়া দু'জন ব্যক্তি একটি স্টেজের উপর দাঁড়ানোর পর হাত বেত নিয়ে মুখ ঢাকা এক ব্যক্তি এসে তাদের বেত্রাঘাত করে।

যে দু'জন সমকামী পুরুষকে এজন্য শাস্তি দেয়া হয়েছে তাদের একজনের বয়স ২০ বছর এবং অপরজনের বয়স ২৩ বছর।

গত মার্চ মাসে এ দুজন সমকামীকে যৌন কর্মের দায়ে হাতেনাতে আটক করা হয়েছিল।

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ ইন্দোনেশিয়ায় সমকামিতা অবৈধ নয়।

কিন্তু আচেহ প্রদেশে ইসলামি শরিয়া আইন থাকার কারণে সেখানে সমকামিতার জন্য সাজার বিধান রয়েছে।

এ প্রথমবারের মতো সেখানে শরিয়া আইনের আওতায় সমকামীদের বেত্রাঘাত করা হয়েছে।

রাজধানী বান্দা আচেহ'র একটি মসজিদে বাইরে বেত্রাঘাতের এ শাস্তি কার্যকর হয়।

যখন এ শাস্তি কার্যকর করা হচ্ছিল তখন শত শত মানুষ সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। সমকামীদের বেত্রাঘাত করার সময় তারা উল্লাস প্রকাশ করে।

এ সময় অনেকে তাদের মোবাইল ফোনে বেত্রাঘাতের ভিডিও এবং ছবি তোলে।

একজন বলছিলেন, " এটা তোমাদের জন্য একটা শিক্ষা হওয়া দরকার।"

আরেকজন চিৎকার করে বলছিলেন, " এদের আরো জোরে পেটাও।"

তবে শাস্তি কার্যকরের আগে আয়োজকদের একজন সাধারণ মানুষের প্রতি আহবান জানিয়েছিলেন যাতে তারা সমকামীদের উপর আক্রমণ না করে। সে আয়োজক বলেছিলেন, " তারাও তো মানুষ"

শাস্তি হিসেবে প্রত্যেক সমকামীকে ৮৫ বার করে বেত্রাঘাত করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

কিন্তু যেহেতু তারা দুইমাস আটক ছিল সেজন্য দু'বার বেত্রাঘাত কমিয়ে সেটিতে ৮৩ বার বেত্রাঘাত নির্ধারণ করা হয়।

২০১৪ সালে ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশে সমকামিতার বিপক্ষে কঠোর আইন করা হয়।

এর আগে মদ্যপান এবং জুয়া খেলার জন্য বেত্রাঘাতের মাধ্যমে শাস্তি দেয়া হতো।

ছবির কপিরাইট JUNAIDI
Image caption সমকামীদের বেত্রাঘাতে অনেকে উল্লাস প্রকাশ করে।

কয়েকদিন আগে রাজধানী জাকার্তায় সমকামীদের একটি অনুষ্ঠান থেকে ১৪১জন পুরুষ আটক করেছে পুলিশ।

কর্মকর্তারা বলছেন, সেখানে সমকামীদের একটি 'সেক্স পার্টি' চলছিল।

সেখানে যারা যোগ দিয়েছিলেন তাদের মধ্যে একজন ব্রিটিশ ও একজন সিঙ্গাপুরের নাগরিক রয়েছে। সে অনুষ্ঠানে যোগ দেবার জন্য সবাই ১৪ ডলার করে দিয়েছিল।

মুসলিম প্রধান ইন্দোনেশিয়ায় সমকামীদের অস্তিত্ব রয়েছে। তাদের অভিযোগ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সমকামীরা নিগ্রহের শিকার হচ্ছে।

সম্পর্কিত বিষয়