জেএমবির সাবেক প্রধান সাইদুর রহমানকে সাড়ে সাত বছরের কারাদণ্ড

  • ২৫ মে ২০১৭
ছবির কপিরাইট Focusbangla
Image caption জেএমবির সাবেক প্রধান সাইদুর রহমান (ফাইল ছবি)।

বাংলাদেশে জঙ্গি সংগঠন, জেএমবির সাবেক প্রধান সাইদুর রহমান এবং তার দুই সহযোগীকে সাড়ে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে ঢাকার একটি আদালত।

একইসাথে তাদের তিনজনের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করেছে আদালত।

সন্ত্রাসবিরোধী আইনে তাদের বিরুদ্ধে আনা তিনটি অভিযোগের দুটি প্রমাণিত হওয়ায় একটিতে সাত বছর এবং অপরটিতে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয় আদালত। অন্য অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় খালাস দেয়া হয়েছে।

তবে সাইদুর রহমান ছাড়া এই মামলার বাকি দুজন আসামী পলাতক রয়েছে। তাদের মধ্যে একজন মি. রহমানের স্ত্রী আয়শা আক্তার এবং অন্যজন আব্দুল্লাহেল কাফী।

জেএমবির নেতা শায়খ আব্দুর রহমান এবং বাংলাভাই নামে পরিচিত সিদ্দিকুল ইসলামসহ সাত জনের ফাঁসি হয় ২০০৭ সালে। এরপর সংগঠন পুনর্গঠনের উদ্যোগ নেন সাইদুর রহমান।

সিলেটের যে বাড়ি থেকে শায়খ আব্দুর রহমানকে আটক করা হয়েছিলো, সেই বাড়িতে বিস্ফোরক পাওয়া সম্পর্কিত মামলায় সাইদুর রহমানের ১৪ বছরের জেল বা সাজা হয়েছিল বলে জানিয়েছিল পুলিশ।

এছাড়া তার বিরুদ্ধে আরো কয়েকটি মামলা রয়েছে। ২০১০ সালের ২৫শে মে ঢাকার দনিয়া এলাকা থেকে সাইদুর রহমানসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা সেসময় জানান, সাইদুর রহমান হবিগঞ্জে ১৯৭৭-৭৮ সালে ইসলামী ছাত্র শিবিরের সাথে জড়িত ছিলেন এবং পরে তিনি জামায়াতে ইসলামীর হবিগঞ্জ জেলার আমীর হন। জেএমবির সঙ্গে সাইদুর রহমানের সম্পৃক্ততার খবর প্রকাশিত হয় ২০০৫ সালে।

জামায়াতে ইসলামী তখন বলেছিল, এর বেশ আগেই সাইদুর রহমানকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

২০১১ সাল থেকে তার বিচার শুরু হলেও সন্ত্রাসবিরোধী আইন অনুযায়ী রাষ্ট্রপক্ষের অনুমোদন না নেয়ায় পুনরায় নথিপত্র তৈরি করে বিচারের অনুমোদন নেয়ার আবেদন করা হয় ২০১৫ সালে।

এবছরই পুনরায় স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রায় দিল আদালত।

আরও পড়ুন:

দখিনা বাতাসের কারণেই এবারে গরম বেশি

আইসিসি র‍্যাংকিং: এগুলো বাংলাদেশ, বিশ্বসেরা সাকিব

সম্পর্কিত বিষয়