ট্রাম্পের ‘মুণ্ড’ হাতে ছবি: ক্যাথি গ্রিফিনকে বরখাস্ত করলো সিএনএন

  • ১ জুন ২০১৭
ক্যাথি গ্রিফিন ও অ্যান্ডারসন কুপার ছবির কপিরাইট cnn
Image caption কয়েক বছর ধরে অ্যান্ডারসন কুপারের সঙ্গে সিএনএন এর নিউ ইয়ার প্রোগ্রামে উপস্থাপনা করে আসছেন ক্যাথি গ্রিফিন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নকল 'মুণ্ড' হাতে নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক ছবি তোলায় কৌতুক অভিনেত্রী ও উপস্থাপক ক্যাথি গ্রিফিনকে চাকরিচ্যুত করেছে দেশটির অন্যতম সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

এক টুইট বার্তায় সিএনএন বলেছে " প্রতিবছর নিউ ইয়ার প্রোগ্রাম উপস্থাপনার জন্য গ্রিফিনের সঙ্গে যে চুক্তি ছিল সেটা সমাপ্ত ঘোষণা করা হলো"।

মঙ্গলবার টুইটারে একটি ছবি প্রকাশ করেন গ্রিফিন যেখানে দেখা যায় মি: ট্রাম্পের 'রক্তাক্ত কাটা মুণ্ড' হাতে ধরে আছেন তিনি।

সেখানে তিনি লিখেছিলেন "তার চোখ থেকে রক্ত ঝরে পড়ছে...রক্ত বের হচ্ছে....."।

যদিও এই ছবিটা প্রকাশ করে গ্রিফিন মজা করার চেষ্টা করেছেন কিন্তু এতে অনেকেই কোনো মজার কিছু খুঁজে পাননি। এরপর গ্রিফিন আবারো টুইট করে বলেন "আমি আমার ভক্তদের কাছ থেকে কোন ধরনের সহিংস আচরণ চাইছিনা। আমি একজন বিদ্রূপকারীকে নিয়ে বিদ্রূপ করছি"।

ছবিটি প্রকাশিত হওয়ার পর ক্যাথি গ্রিফিন ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন।

'নিউ ইয়ার প্রোগ্রামে' তার সহ-উপস্থাপক অ্যান্ডারসন কুপারও সমালোচনা করে বলেছেন এমন ছবি দেখে তিনি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন।

মি: ট্রাম্প এই ছবি দেখে বলেছেন এটি অসুস্থ মানসিকতার পরিচয় বহন করে। অন্যদিকে ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্প বলেছেন ছবিটি খুব ভয়ঙ্কর এবং অস্বস্তিকর।

ছবির কপিরাইট TYLER SHIELDS
Image caption এই ছবিটি পোস্ট করে ইন্টারনেটে সমালোচনার মুখে পড়েন গ্রিফিন

"ক্যাথি গ্রিফিনের নিজেকে নিয়ে লজ্জা হওয়া উচিত। এই ছবির কারণে আমার স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে বিশেষ করে ১১ বছর বয়সী ব্যারনকে নিয়ে বাজে সময় পার করতে হচ্ছে" -বলেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

ব্যাপক সমালোচনার মুখে গ্রিফিন দু:খও প্রকাশ করেছেন। ক্ষমাও চেয়েছেন।

টুইটারে এক ভিডিওতে তিনি ক্ষমা চেয়ে বলেছেন তিনি 'সীমা অতিক্রম করে ফেলেছেন'।

এই ছবিটি তুলেছিলেন তারকা ফটোগ্রাফার টায়লার শিল্ডস।

এমি এওয়ার্ডজয়ী ৫৬বছর বয়সী এই অভিনেত্রী বলেছেন তিনি টায়লার শিল্ডসকে বলেছেন ছবিটি যেন ইন্টারনেট থেকে মুছে দেয়া হয়।

এই বিভৎস ছবিটি প্রকাশের পর তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন হিলারি ক্লিনটনের মেয়ে চেলসি ক্লিনটন।

"একজন প্রেসিডেন্টের রক্তাক্ত মাথা হাতে নিয়ে ছবি কোন ধরনের তামাশা হতে পারে না" -টুইটারে লিখেছেন চেলসি।

ক্যাথি গ্রিফিন বলেছেন "আমি দেখছি মানুষের তীব্র প্রতিক্রিয়া। আমি কৌতুক অভিনেত্রী, তবে আমি সীমা অতিক্রম করেছি। ছবিটি আসলেই অস্বস্তিকর। আমি বুঝতে পারছি মানুষের মনে এটা কতটা প্রভাব ফেলছে। সবার ক্ষমা চাই"।

ওই ছবি প্রকাশের পর ইতোমধ্যেই একটি কোম্পানি গ্রিফিনের সঙ্গে তাদের চুক্তি বাতিল করেছে।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ক্যাথি গ্রিফিন বরারবরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কট্টর সমালোচক ছিলেন